রাজশাহী-৬ আসনে আ’লীগ-বিএনপি-জাতীয় পার্টির মনোনয়নে ১৭ নেতার দৌড়ঝাঁপ

November 18, 2018 at 4:06 pm

আমানুল হক আমান, বাঘা:
রাজশাহী-৬ (বাঘা-চারঘাট) আসনে আ.লীগ-বিএনপি-জাতীয় পার্টির মোট ১৭ জন নেতার মনোনয়ন নিয়ে দৌড়ঝাঁপ শুরু হয়েছে। ফলে সকল দলের নেতারা নিজ নিজ সম্বল নিয়ে মনোনয়নের প্রত্যাশায় ঢাকায় কেন্দ্রীয় নেতাদের দ্বারে দ্বারে ঘুরছেন বলে এক সূত্রে জানা গেছে। ১৭ জনের মধ্যে রয়েছে আ.লীগের ৪ জন, বিএনপি’র ৯ জন, জাতীয় পার্টির ৪ জন প্রার্থী।

জানা যায়, আ.লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশিতরা হলেন-বর্তমান পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী ও বাঘা উপজেলা আ.লীগের সভাপতি শাহরিয়ার আলম এমপি, রাজশাহী জেলা আ.লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও রাবি ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি অ্যাডভোকেট লায়েব উদ্দিন লাভলু, সাবেক সাংসদ ও সাবেক চারঘাট উপজেলা আ.লীগের সাধারণ সম্পাদক রায়হানুল হক রায়হান, বাঘা পৌরসভার সাবেক মেয়র ও জেলা আ.লীগের সদস্য আক্কাছ আলী।

বিএনপি’র মনোনয়ন প্রত্যাশিতরা হলেন, বিএনপি’র কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ও চারঘাট উপজেলা চেয়ারম্যান আবু সাইদ চাঁদ, বিএনপি’র কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য দেবাশীষ রায় মধু, বিএনপি’র কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য রমেশ দত্ত, রাজশাহী জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি বজলুর রহমান, বাঘা উপজেলা বিএনপি’র সাবেক সভাপতি নুরুজ্জামান খান মানিক, রাজশাহী জেলা বিএনপি’র সাংগঠনিক সম্পাদক গোলাম মোস্তফা মামুন, জেলা যুবদলের সাবেক সভাপতি আনোয়ার হোসেন উজ্জল, লন্ডন প্রবাসী ব্যারিস্টার শামসুজ্জোহা, রাজশাহী জেলা বিএনপি’র সদস্য ও বাঘা পৌরসভার জিয়া পরিষদের সভাপতি প্রভাষক শাহিন মন্ডল।

জাতীয় পার্টির মনোনয়ন প্রত্যাশিতরা হলেন-রাজশাহী জেলা জাতীয় পার্টির সাধারণ সম্পাদক শামসুদ্দিন রিন্টু, বাঘা উপজেলা জাতীয় পার্টির সভাপতি মহিদুল ইসলাম, চারঘাট উপজেলা জাতীয় পার্টিও সভাপতি রফিকুল ইসলাম চৌধুরী, জেলা জাতীয় পার্টির সাবেক আইন বিষয়ক সম্পাদক ইকবাল হোসেন।

তবে জামায়াতে ইসলামী থেকে রাজশাহী- (বাঘা-চারঘাট) আসনে কেউ মনোনয়ন উত্তোলন করেনি।

রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও রাবি ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি অ্যাড. লায়েব উদ্দিন লাভলু বলেন, মনোনয়ন পাওয়ার ক্ষেত্রে প্রতিযোগিতা থাকাটা স্বাভাবিক। তবে অবশ্য দলীয় প্রধান হিসাব-নিকাশ করে মনোনয়ন দিবেন। এই প্রত্যাশা করি।

বাঘা পৌরসভার সাবেক মেয়র ও জেলা আ.লীগের সদস্য আক্কাস আলী বলেন, ভোট হলো উৎসব। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যাকে মনোনয়ন দিবেন, তার পক্ষে মনোনয়ন প্রত্যাশিতরা কাজ করবে এ আশা করি।

রাজশাহী জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি বজলুর রহমান বলেন, গত নির্বাচনে বিএনপি অংশ নেয়নি। ফলে এ নির্বাচন নেতাদের মধ্যে আগ্রহ একটু বেশি।

জেলা বিএনপি’র সাংগঠনিক সম্পাদক গোলাম মোস্তফা মামুন বলেন, বর্তমান সরকারের প্রতি বিএনপি’র ক্ষোভ রয়েছে। ফলে মনোনয়ন জমা দিয়েছেন বিএনপি’র একাধিক নেতারা।

রাজশাহী জেলা জাতীয় পার্টির সাধারণ সম্পাদক শামসুদ্দিন রিন্টু বলেন, এ আসনে জাতীয় পার্টির ভালো একটা অবস্থান আছে। এ অবস্থান থেকে জাতীয় পার্টির নেতারা মনোনয়ন জমা দিয়েছেন।

স/অ

Print