গনভবন সংস্কার করে বৃহৎ পরিকল্পনা নেয়া হয়েছে: নাটোরের জেলা প্রশাসক

March 14, 2018 at 2:28 pm

নাটোর প্রতিনিধি
সারা দেশে পর্যটনের যে কয়টি জায়গা রয়েছে তাদের মধ্যে উত্তরা গণভবন হবে একটি। এজন্য গনভবন সংস্কার করে বৃহৎ পরিকল্পনা নেয়া হয়েছে। পাশাপাশি পর্যটকদের সুবিধা বৃদ্ধির জন্য ইতোমধ্যে গণভবনের সামনে আবাসিক বব্যবস্থা, রেস্টুরেন্ট, সিনেপ্লেক্স করার জন্য একটি আর্কিটেক ফার্ম ডিজাইন করেছে। যেটি ৪৫ কোটি টাকার প্রকল্প হতে পারে। আর প্রকল্পটি বাস্তবায়ন হলে গনভবনে দর্শনার্থীদের সংখ্যা বৃদ্ধি পাবে।

বুধবার সকালে জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে এক প্রেসব্রিফিংয়ে নাটোরের জেলা প্রশাসক শাহিনা খাতুন এসব কথা বলেন। এসময় উত্তরা গণভবন নিয়ে সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেন জেলা প্রশাসক।

ব্রিফিংয়ে জেলা প্রশাসক এক প্রশ্নের জবাবে বলেন, আগে গণভবনটি সংস্কারের পর নাটোর রাজবাড়িও সংস্কার করা হবে। যেহেতু গনভবনের কাজে হাত দেওয়া হয়েছে, সেকারনে আগে এটি পর্যটকদের জন্য উপযোগি হিসেবে তৈরী করা হচ্ছে।
ইন্দু প্রভার চিঠির বিষয়ে জেলা প্রশাসক বলেন, ইন্দু প্রভার ২৮৫টি চিঠি নিয়ে জেলা প্রশাসন কাব্য গ্রন্থ প্রকাশ করবে। আর গনভবনে স্থাপিত সংগ্রহশালা দেখতে প্রতিনিয়তই দর্শনার্থীদের সংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে।

ব্রিফিংয়ে স্থানীয় সরকার বিভাগের উপ-পরিচালক গোলাম রাব্বী, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট রাজ্জাকুল ইসলাম, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক ( রাজস্ব) মনিরুজ্জামান ভুইয়া, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক ( সার্বিক) ড. চিত্তলেখা নাজনিন, নাটোর সদর উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা জেসমিন আক্তার বানু, সহকারী কমিশনার (ভুমি) শামীম ভুইয়া, নেজারত ডেপুটি কালেক্টরেট অনিন্দ মন্ডল সহ সাংবাদিকরা উপস্থিত ছিলেন।

 

স/আ

Print