সাইবার হানায় আক্রান্ত সংবাদ সংস্থা আল-জাজিরা

June 9, 2017 at 3:54 am

সিল্কসিটিনিউজ ডেস্ক: মধ্য এশিয়ার একাধিক সন্ত্রাসবাদের ঘটনাকে লাগাতার প্রশ্রয় দেওয়ায় কাতারের সঙ্গে সমস্ত সম্পর্ক ত্যাগ করেছে সৌদি আরব সহ মিশর, আরব আমিরশাহি ও বাহারিনের মতো দেশগুলি৷ মধ্য এশিয়ার প্রধান চার দেশের এহেন সিদ্ধান্তের জেরে কাতার যে সঙ্কটের সম্মুখীন হবে তা আর বলার অবকাশ রাখে না৷ সৌদি আরবের সংবাদসংস্থা এসপিএ জানিয়েছে, বিগত বেশ কয়েক বছর ধরেই লাগাতার সন্ত্রাসবাদকে মদত দিয়ে চলেছে কাতার৷ এই বিষয়ে সৌদি আরব বা অন্যান্য দেশগুলি সরব হলেও তাতে খুব একটা আমল দেয়নি দোহা৷ কয়েক মাস আগেই সৌদি আরবের তরফে এক বিবৃতিতে জানানো হয় কাতার যদি সন্ত্রাসবাদকে মদত দেওয়া বন্ধ না করে তাহলে সমস্ত বাণিজ্যিক চুক্তির পথ থেকে সরে দাঁড়াতে বাধ্য হবে৷এদিন সেই হুশিয়ারিকে কার্যত বাস্তবে পরিণত করল সলমনের দেশ৷ ইতিমধ্যে সমস্ত বিমান ও জাহাজ সংস্থাগুলিকে নির্দেশ পাঠিয়েছে মিশর৷ তাতে বলা হয়েছে কাতারের উদ্দেশে আপাতত বন্ধ রাখতে হবে সমস্ত উড়ান৷ জাহাজ পরিষেবাও এখন পাওয়া যাবে না বলে জানানো হয়েছে৷

২০২২ এর ফুটবল বিশ্বকাপ হওয়ার কথা কাতারে৷ কিন্তু তার ঠিক বছর পাঁচের আগে কাতারের একাধিক প্রতিবেশী রাষ্ট্রের এহেন আচরণ দোহাকে যে শান্তি দেবে না তা বলাই যেতে পারে৷ এবিষয়ে আন্তর্জাতিক বিশেষজ্ঞদের মতে, ২০১৩তে কাতারে নিজেদের অফিস চালু করে তালিবান৷ তারপর থেকেই কাতারের বিরুদ্ধে একটা ক্ষোভ ছিলই অন্যান্য দেশগুলির৷যদিও পরবর্তীকালে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের নেতৃত্বে আইএস জঙ্গি বিরোধী এক চুক্তি হয়৷তাতে কাতারও সই করে৷

সূত্র: কলকাতা ২৪
Print