রাজশাহী নগরীতে অবৈধ বালুঘাটে হুমকিরমুখে বাঁধ

April 16, 2019 at 2:44 pm

নিজস্ব প্রতিবেদক:

রাজশাহীতে প্রশাসনকে বৃদ্ধাঙ্গলি দেখিয়ে অবৈধভাবে একটি বালুঘাট চালু করার অভিযোগ উঠেছে। রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের প্রভাবশালী এক নেতার প্রত্যক্ষ্য মদদে এ বালুঘাট চালু করা হচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে। 

বালুঘাট টি চালু করার জন্য স্থানীয়দের নিকট থেকে শেয়ার বিক্রি বাবদ দুই থেকে আড়াই লাখ টাকা করে উত্তোলন করা হয়েছে বলেও অভিযোগ উঠেছে। এদিকে অবৈধ এ বালুঘাটের কারণে রাজশাহী শহররক্ষা বাঁধ পড়েছে হুমকিরমুখে। বছর পাঁচেক আগে তালাইমারি এলাকায় এই বালুঘাটটি চালু থাকলেও শহররক্ষা বাঁধ রক্ষার জন্য সেটি বন্ধ করে দেয় প্রশাসন। কিন্তু প্রশাসনকে ম্যানেজ করে লিজ ছাড়ায় আওয়ামী লীগের ওই নেতার পশ্রয়ে আবার বালুঘাটটি চালু করা হয় সম্প্রতি। এ নিয়ে চরম ক্ষোভ ছড়িয়ে পড়েছে স্থানীয় এলাকাবাসীর মাঝে।

এদিকে অবৈধভাবে ঘাটটি চালু করা হলে এক বছরে সরকার রাজস্ব বঞ্চিত হবে অন্তত পাঁচ কোটি টাকা। এছাড়া হুমকির মুখে পড়বে রাজশাহী শহর রক্ষা বাঁধের একাংশ ওই এলাকায় অবস্থিত বিজিবি ক্যাম্প।

অভিযোগ রয়েছে, এর আগে রাজশাহীতে বালু কারবারি সিন্ডিকেটের কারণে গত পাঁচ বছরে যে অনিয়ম ও দুর্নীতি হয়েছে তাতে যেন পুকুর চুরিকেও হার মানিয়েছে। বালু কারবারি সিন্ডিকেটের কারণে গত পাঁচ বছরে সরকার প্রায় ৭৭ কোটি টাকা রাজস্ব বঞ্চিত হয়েছে।

সূত্র জানায়, ওই পাঁচ বছরে রাজশাহী নগরী ও জেলার মোট ১১টি বালু ঘাট ইজারা দেওয়ার মাধ্যমে সরকারের কোষাগারে জমা পড়ে প্রায় সাড়ে তিন কোটি টাকা। তবে এবার ৯টি বালুঘাট ইজারা দিয়ে আয় হয় ১৬ কোটি ১৫ লাখ টাকা। কিন্তু এই নয়টি ঘাটের মধ্যেও পড়েনি অবৈধভাবে চালু করা তালাইমারী এলাকার এই ঘাটটি। 

সংশ্লিষ্টরা বলছেন, প্রভাবশালী একটি মহল অবৈধভাবে তালাইমারী বালু ঘাটটি চালু করে। এরই অংশ হিসেবে তারা তালাইমারী বিজিবি ক্যাম্প সংলগ্ন শহর রক্ষা বাঁধের পাড়ে ব্লকের ওপর দিয়ে বালুবাহী ট্রাক যাতায়াতের জন্য রাস্তা তৈরি করেছে। প্রশাসনকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে অবৈধভাবে এ বালুঘাটটি চালু করা হয়েছে। 

এতে করে শহর রক্ষা বাঁধের একাংশ ও বিজিবি ক্যাম্প হুমকির মুখে পড়ার আশংকা করছেন সংশ্লিষ্টরা। 

স/আর

Print