বাঘায় নারী চেয়ারম্যান হিসেবে রুমির দায়িত্ব গ্রহণ

October 12, 2017 at 8:38 pm

বাঘা প্রতিনিধি:
রাজশাহীর বাঘা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান জিন্নাত আলী ও পুরুস ভাইস চেয়ারম্যান মুক্তিযোদ্ধা শফিউর রহমান শফি’র বিরুদ্ধে মামলা থাকায় নারী ভাইস চেয়ারম্যান ফারহানা দিল আফরোজ রুমি চেয়ারম্যানের দায়িত্ব গ্রহণ করেছেন। গত মঙ্গলবার থেকে তিনি দায়িত্ব গ্রহণ করেছেন।

 

জানা যায়, ২০১৩ সালের নাশকতা মামলার অপরাধে চেয়ারম্যান ও জামায়াত নেতা জিন্নাত আলী ও ১৯৯৫ সালে গম আত্মসাতের অভিযোগে ভাইস চেয়ারম্যান জাসদ নেতা মুক্তিযোদ্ধা শফিউর রহমান শফিকে সাময়িক বহিস্কার করে স্থানীয় সরকার। স্থানীয় সরকার পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রনালয়ের স্থানীয় সরকার বিভাগ (উপজেলা-১ শাখা)’র উপসচিব ড. জুলিয়া মঈন স্বাক্ষরিত এক পত্রে তাদের দুই চেয়ারম্যানকে সাময়িক বহিস্কার করে এবং নারী ভাইস চেয়ারম্যান ফারহানা দিল আফরোজ রুমিকে চেয়ারম্যানের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে।

উল্লেখ্য, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও জামায়াত নেতা জিন্নাত আলীর নামে নাশকতাসহ একাধিক মামলা রয়েছে। এই মামলার চার্জশিট (চুড়ান্ত প্রতিবেদন) প্রেরিত করা হয়েছে আদালতে। ফলে উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান জিন্নাত আলীকে তার পদ থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে।

অপর দিকে ১৯৯৫ সালে উপজেলার বাবুবাঘা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান থাকাকালীন সময়ে ১৫ টন গম আত্মসাত মামলায় মুক্তিযোদ্ধা শফিউর রহমান শফি’র তিন বছরের সাজা হয়। এই মামলায় গত মাসের শেষ সপ্তাহে তাকে কারাগারে যেতে হয়েছে। ফলে স্থানীয় সরকার পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রনালয়ের স্থানীয় সরকার বিভাগ (উপজেলা-১ শাখা)’র উপসচিব ড. জুলিয়া মঈন স্বাক্ষরিত পত্রে নারী ভাইস চেয়ারম্যান ফারহানা দিল রুমিকে চেয়ারম্যানের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শাহিন রেজা বলেন, দুই চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগের কারনে জনস্বার্থের পরিপন্থী মর্মে, উপজেলা পরিষদের ধারা অনুযায়ী তাদের সাময়িক বহিস্কার করে নারী ভাইস চেয়ারম্যানকে পরিষদের সকল কার্যক্রম পরিচালনার দায়িত্ব দিয়েছেন মন্ত্রনালয়।
স/শ

Print