নওগাঁয় প্রভাবশালীদের হুমকির মুখে কৃষকের পরিবার 

May 23, 2019 at 9:16 pm
নিজস্ব প্রতিবেদক, নওগাঁ:
নওগাঁর হাঁসাইগাড়ী ইউনিয়নের নামাকুজাগাড়ী গ্রামে গত ১৫ দিন যাবৎ হাসেন আলী নামে এক কৃষক পরিবারের উপর হামলা, হুমকি এবং একঘরে করে রাখার অপচেষ্টা চালানোর অভিযোগ পাওয়া গেছে গ্রামের প্রভাবশালীদের বিরুদ্ধে। ঘটনায় ভুক্তভোগী হাসেন আলী অভিযুক্ত আমজাদ আলীকে প্রধান আসামী করে ৩১ জনের বিরুদ্ধে নওগাঁর বিজ্ঞ আদালতে অভিযোগ দায়ের করেন। ঘটনার পর থেকে ওই পরিবারের কোন সদস্য মসজিদসহ স্থানীয় শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান/হাট-বাজারে ভয়ে ঠিক মতো যেতে পারছেন না। এতে করে ওই পরিবারের প্রায় ১০/১২ জন সদস্য অসহায় হয়ে পড়েছেন।
হাসেন আলীর স্ত্রী মনোয়ারা বেগম বলেন, আমার বাবা জীবিত থাকাকালীন আমাকে পৌনে ২ বিঘা জমি লিখে দেয়। দীর্ঘদিন যাবৎ সেই জমিতে আমরা আবাদ-ফসল করে আসছি। কিন্তু গত ১৫ দিন পূর্বে দিন-দুপুরে আমার সৎ ভাই আমজাদ আলী, জহুরুল ইসলাম রিঙ্কু, গ্রাম্য ডাক্তার মামুন আলীসহ কয়েকজন আমার স্বামীকে কাঠখৈইর বাজারের পাশে গাছের সাথে বেঁধে রেখে রোপনকৃত জমির ধান কেটে নিয়ে যায়। এতে করে প্রায় ৫০-৬০ হাজার টাকার ক্ষতি সাধন হয়েছে। পরে আমার স্বামী হাসেন আলীর চিৎকারে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে বাসায় পৌঁছে দেয়।
ঘটনায় প্রভাবশালীদের হুমকি-ধামকির কারণে গত ১৫দিন থেকে মানবেতর দিন পার করেছেন পরিবারটি। এতে মসজিদে নামাজ আদায় বন্ধসহ ছেলে মেয়েদের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে পড়ালেখা করতে যেতে ভয় পেতে হচ্ছে। এছাড়া দিন মজুরকেও বাড়িতে কাজ করেত নিষেধ করা হচ্ছে। তাদেরকে একঘরে করে রাখার চেষ্টা করে যাচ্ছেন তারা বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।
অভিযুক্ত প্রধান আসামি আমজাদ আলীর সাথে ফোনে একাধিকবার যোগাযোগ করা হলেও তার ফোনটি বন্ধ পাওয়া যায়।
এ বিষয়ে ফোনে জানতে চাইলে ৩ নম্বর অভিযুক্ত ডা. মামুন আলী বলেন, আমার বিরুদ্ধে যেসব অভিযোগ করা হয়েছে তা মিথ্যা। আমি হুমকি-ধামকি দেয়নি এবং জোরপূর্বক ধান কাটার সাথে আমি জড়িত নই। যেহেতু আদালত তদন্তভার থানাকে দিয়েছে। তদন্ত সম্পন্ন হলে জানতে পারবেন দোষী নাকি নিদোর্ষ বলে জানান তিনি।
এ বিষয়ে নওগাঁ সদর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. আব্দুল হাই জানান, বিষয়টি নিয়ে দুই পক্ষকে নিয়ে বসে আপস-মিমাংসা করা হবে। আর হুমকির অভিযোগ পেলে অবশ্যই হুমকিদাতাদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।
স/শা
Print