দলীয় আইনজীবীর কথা শুনলে খালেদার দীর্ঘ কারাবাস

February 26, 2018 at 10:08 pm

সিল্কসিটিনিউজ ডেস্ক:

স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম বলেছেন, দলীয় আইনজীবীদের পরামর্শ শোনায় বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে বাড়ি ছাড়তে হয়েছে। দলীয় আইনজীবীদের কথা শুনলে খালেদা জিয়াকে অনেক বছর জেলে থাকতে হবে।

আজ সোমবার জাতীয় সংসদে রাষ্ট্রপতির ভাষণের ওপর ধন্যবাদ প্রস্তাবের আলোচনায় অংশ নিয়ে মো. নাসিম এসব কথা বলেন।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী নাসিম বলেন, তাঁরা চান না খালেদা জিয়া জেলে থাকুক। আদালতের মাধ্যমে তিনি কারাগারে গেছেন, আদালতের মাধ্যমেই মুক্তি পাবেন।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, একাদশ সংসদ নির্বাচন হবে সংবিধান অনুযায়ী। বিএনপিকে সেই নির্বাচনে অংশ নেওয়ার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, ‘আমরা সবাইকে নিয়ে মাঠে খেলতে চাই। একা খেলতে চাই না। সরকারের রেকর্ড অনেক ভালো। আমরা কেন অন্যকে ভয় পাব। আপনারা মাঠে আসেন। খেলে জিতেন। দয়া করে ফাউল করবেন না। মাঠেই ফাইনাল খেলা হবে।’

স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম বলেন, হরতালের মতো আন্দোলন কর্মসূচি সফল হবে না। কারণ, এখন মানুষ আন্দোলন পছন্দ করে না। মানুষ সমৃদ্ধি চায়। আওয়ামী লীগও যদি কখনো বিরোধী দলে যায়, তখনো হয়তো হরতাল সফল হবে না।

ভোট বাড়লে খালেদার জামিন চাচ্ছেন কেন?
বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মওদুদ আহমদের এক বক্তব্যের জবাবে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, ‘মওদুদ সাহেবরা বলছেন খালেদা জিয়া জেলে যাওয়ার পর প্রতিদিন তাদের ১০ লাখ ভোট বাড়ছে। যদি আপনাদের এত ভোট বাড়লে আপনারা খালেদা জিয়ার মুক্তি চাচ্ছেন কেন, জামিন যাচ্ছেন কেন, জামিনের জন্য প্রতিদিন কেন কোর্টে যান। তিনি জেলে থাকলে তো আপনাদের ভোট বাড়বে। আপনাদের ভোট বেড়ে ৩০ কোটি হবে।’

একাদশ সংসদ নির্বাচনে জয়ী হওয়ার আশা ব্যক্ত করে আওয়ামী লীগের নেতৃত্বাধীন ১৪ দলের শরিক জাসদের মঈন উদ্দীন খান বাদল বলেন, ‘নেহরু বাদে ভারতে সংসদীয় পদ্ধতিতে ১৫ বছর টানা ক্ষমতায় থাকার সুযোগ কেউ পায়নি। বর্তমান সরকার সে সুযোগ পেতে যাচ্ছে। আমরা সেই সুযোগ পেতে যাচ্ছি।’

বিরোধী দল জাতীয় পার্টির সদস্য পীর ফজলুর রহমান বলেন, উন্নয়নের পাশাপাশি দুর্নীতি হচ্ছে। সুশাসন নিশ্চিত করা যাচ্ছে না। প্রশ্ন ফাঁসের বিহিত হচ্ছে না। ১৭ দিনে ১২টি বিষয়ের প্রশ্ন ফাঁস হয়েছে, এটা লজ্জাজনক।

আগেও প্রশ্ন ফাঁস হতো, সরকারের এমন বক্তব্যের সমালোচনা করে পীর ফজলুর রহমান বলেন, যুগে যুগে প্রশ্ন ফাঁস হয়েছে কি না, শিক্ষামন্ত্রী ফাঁস হওয়া প্রশ্নে পরীক্ষা দিয়েছেন কি না, তা তিনি জানেন না। তবে তিনি (ফজলু) ফাঁস হওয়া প্রশ্নে পরীক্ষা দেননি।

পীর ফজলুর রহমান বলেন, আমানতকারীরা ব্যাংকে টাকা রাখতে আতঙ্ক বোধ করছেন। প্রশ্ন করলে অর্থমন্ত্রী উত্তেজিত হয়ে যান, রাগ করেন। অর্থমন্ত্রী বলেন, উত্তর দেবেন না।

বিরোধী দলের এই সদস্য বলেন, আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি ভালো নয়। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সামনে চেয়ার-টেবিল ভেঙে মানুষকে বিদায় করে দেওয়া হয়েছে। ঘুষ দিয়ে পদোন্নতি পাওয়া স্বাভাবিক হয়ে গেছে।

সূত্র: প্রতম আলো

Print