রাজশাহীতে মাদ্রাসা ছাত্রীকে হাত মুখবেধে ধর্ষণের অভিযোগ

May 17, 2018 at 5:10 pm

নিজস্ব প্রতিবেদক:
রাজশাহীতে এক মাদ্রাসা ছাত্রীকে হাত মুখ বেধে জোর পূর্বক ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। আজ বৃহস্পতিবার সকালে পবা উপজেলার কিসমত কুখণ্ডি এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। পরে ছাত্রীর বাবা বা ও স্থানীয়রা গিয়ে ছাত্রীকে উদ্ধার করে। এ সময় লোকজনের উপস্থিতি দেখে পালিয়ে যায় ধর্ষক।

জানা যায়, বৃহস্পতিবার সকাল ১০ টায় কিসমত কুখণ্ডি সংলগ্ন জয়পুর এলাকায় বান্ধবীকে এগিয়ে দিতে যাচ্ছিল ঝিনুক(ছদ্মনাম)। ফেরার পথে উষা এগ্রো খামারের কাছে পৌছালে তাকে ধরে নিয়ে যায় একই এলাকার ফাকি মিয়ার ছেলে জালাল ও তার কয়েক সহযোগী। পরে একটি ঘরে সকাল ১০টা থেকে দুপুর দেড়টা পর্যন্ত আটকে রেখে হাত মুখ বেধে পালাক্রমে ধর্ষণ করে তাকে।

পরে দুপুুর ১ টার দিকে স্থানীয় কিছু ছেলে বিষয়টি বুঝতে পেরে ধর্ষক জালালকে ধাওয়া করে। এসময় জালাল ও অন্যরা পলয়ে যায়। পরে ঝিনুকের বাবা মাকে জানালে তাদের সহায়তায় সেখানে গিয়ে উদ্ধার করেন তারা। এসময় স্থানীয় লোকজনের উপস্থিতি টের পেয়ে পালিয়ে যায় জালাল ও তার সহযোগী। পরে বিষয়টি ঝিনুক তার বাবা মাকে জানায়।

বিকেল ৫ টায় এ প্রতিবেদন লিখা পর্যন্ত ঝিনুকের বাবা মা জালালের বিরুদ্ধে কাটাখালি থানা মামলা দায়ের করছিলেন।

কাটাখলি থানার ডিউটি অফিসার ফয়েজ জানান, এ বিষয়ে ছাত্রীর বাবা বাদী হয়ে একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের করেছে। আসামীদের গ্রেফতারের জন্য ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।

জানতে চাইলে কাটাখালি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মেহেদী হাসান জানান, বিষয়টি আমরা শুনেছি । তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

স/শ

Print