চাঁপাইনবাবগঞ্জে শিশু ধর্ষণ ও হত্যাকারী সেই তরিকুল বন্ধুক যুদ্ধে নিহত

নিজস্ব প্রতিবেদক, চাঁপাইনবাবগঞ্জ:

চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর উপজেলায় চরবাগডাঙ্গার ৬ বছরের শিশু মোসলেমা খাতুন রিমা ধর্ষণের পর হত্যার ঘটনায় তরিকুল ওরফে সাদ্দাম (৩৮) পুলিশের সাথে বন্ধুক যুদ্ধে নিহত হয়েছে। আজ বৃহস্পতিবার (২০ ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে সদর উপজেলার শাহজাহানপুর ইউনিয়নের হরিশপুর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। ঘটনাস্থল থেকে ১টি পিস্তল, ৫ রাউন্ড গুলি উদ্ধার করা হয়েছে।

নিহত তরিকুল ওরফে সাদ্দাম সদর উপজেলার চরবাডাঙ্গা গ্রামের নোমানের ছেলে।

এর আগে, সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে ভারত পালিয়ে যাওয়ার সময় সদর উপজেলার আলাতুলী ইউনিয়নের বকচর সীমান্ত থেকে তাকে আটক করে পুলিশ।

চাঁপাইনবাবগঞ্জ অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (হেডকোয়ার্টার) ফজল-ই-খুদা সিল্কসিটি নিউজকে জানান, সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে ভারত পালিয়ে যাওয়ার সময় সদর উপজেলার আলাতুলী ইউনিয়নের বকচর সীমান্ত থেকে সাদ্দামকে জেলা ডিবি পুলিশ আটক করে। তাকে নিয়ে যাওয়ার সময় সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে শাহজাহানপুর ইউনিয়নের হরিশপুর এলাকায় তরিকুল ওরফে সাদ্দামের সহযোগীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে কয়েক রাউন্ড গুলি বর্ষণ করে। পুলিশও পাল্টা গুলি চালায়। এ সময় তরিকুল ওরফে সাদ্দাম গুলিবিদ্ধ হলে তাকে রাত ৯টার দিকে আধুনিক সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। এতে ৩ জন ডিবি পুলিশ আহত হয়েছে বলেও তিনি জানান।

উল্লেখ্য, গত মঙ্গলবার (১৮ ফেব্রুয়ারি) সদর উপজেলার চরবাডাঙ্গা গ্রামের রুহুল আমিনের মেয়ে প্রথম শ্রেণির ছাত্রীকে ধর্ষণের পর হত্যা করে সদর উপজেলার চরবাগডাঙ্গা ইউনিয়নের এমএইচ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পেছনের বাঁশঝাড়ের একটি গর্তে ফেলে দেয়া হয়।

এ ঘটনায় নিহত শিশুর বাবা বুধবার বাদী হয়ে তরিকুলসহ ৫ অজ্ঞাত ব্যক্তিকে আসামি করে নবাবগঞ্জ সদর মডেল থানায় মামলা দায়ের করেন। মামলা দায়েরের পর পলাতক তুরিকুলের বাড়ি থেকে নিহত রিমার পরনের প্যান্ট উদ্ধার করা হয়।

স/অ

Print