বাঘা-চারঘাটে পদ্মার তীর রক্ষায় ৭২২ কোটি টাকা বরাদ্দ

বাঘা প্রতিনিধি:
রাজশাহীর বাঘা ও চারঘাটের পদ্মা নদীর বাম তীরের স্থাপনাসমূহ ভাঙন হতে রক্ষার জন্য ৭২২ কোটি ২৪ লাখ টাকার প্রকল্প অনুমোদন দেয়ায় মিষ্টি বিতরণ করা হয়েছে। আজ বুধবার সকালে বাঘা উপজেলার পাকুড়িয়া ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান ও জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মেরাজুল ইসলাম মেরাজ এই মিষ্টি বিতরণ করেন।

জানা যায়, জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটি (একনেকে) মঙ্গলবার (১৮ ফেব্রুয়ারী) রাজধানীর এনইসি সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত এক সভায় এই প্রকল্প অনুমোদন দেয়া হয়। সভায় সভাপতিত্ব করেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সভায় বাঘা উপজেলার মীরগঞ্জ ও গোকুলপুর এবং চারঘাট উপজেলার ইউসুফপুর ও রাওথা এলাকায় ৪.৩ কিলোমিটার নদীতীর প্রতিরক্ষা কাজ, বাঘা উপজেলার আলাইপুর এলাকায় এক কিলোমিটার বিকল্প বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধ নির্মাণ, ৮০০ মিটার নদীতীর প্রতিরক্ষা কাজ পুনর্বাসন, আলাইপুর থেকে চকরাজাপুর পর্যন্ত ১২.১ কিলোমিটার পদ্মা নদীর ড্রেজিং কাজ করা হবে।

এদিকে একনেকের সভায় প্রকল্পটি অনুমোদন দেয়ায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে রাজশাহী-৬ (বাঘা-চারঘাট) আসনের সাংসদ ও পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।

বাঘা উপজেলার পাকুড়িয়া ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান ও জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মেরাজুল ইসলাম মেরাজ বলেন, আমার নির্বাহী প্রতিশ্রুতি ছিল। চেয়ারম্যান নির্বাচিত হলে পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীর সহযোগিতায় পদ্মায় বাধ নির্মানের ব্যবস্থা করা হবে। অশেষ মেহেরবানীতে কাজটির অনুমোদন হয়েছে। খবর পেয়ে আনন্দে মানুষের মাঝে মিষ্টি বিতরণ করা হয়েছে।

এ বিষয়ে পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী কোহিনুর আলম জানান, পদ্মা নদীতীর প্রতিরক্ষা কাজ, বিকল্প বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধ নির্মাণ, নদীতীর প্রতিরক্ষা কাজ পুনর্বাসন, ড্রেজিং কাজ এ বছরের জানুয়ারী হতে আগামী ২০২৩ সালের জুন পর্যন্ত এই চার অর্থ বছরে কাজটি সম্পূর্ণ করার নির্দেশনা রয়েছে।

স/অ