ভেনেজুয়েলাতে আর্থিক সঙ্কট, কন্ডোম কেনারও পয়সা নেই মানুষের

সিল্কসিটিনিউজ ডেস্ক:

দেশের অর্থনীতি চরম খারাপ। এতটাই খারাপ যে নিজেদের প্রাইভেসি টুকুও মেনে চলতে পারছে সেখানকার সাধারণ মানুষ। এঘটনা দক্ষিণ আমেরিকার ভেনেজুয়েলাতে। অর্থনীতি এতটাই ভেঙে পড়েছে যে, বাড়ি, হোটেল থাকার মতোও পরিস্থিতি নেই সেখানকার দম্পতিদের। এমনকি কন্ডোম কেনার মত পরিস্থিতিও নেই সেখানে।

রিপোর্ট জানাচ্ছে, ভেনেজুয়েলাতে তিনটি কন্ডোমের দাম ২ ডলার। জন্ম নিয়ন্ত্রণ পিলের দাম ৮ ডলার। এমনকি ভেনেজুয়েলার রাজধানী কারাকাসে একটি হোটেল রুমের ৬ ঘন্টার ভাড়া ১০ ডলার। কিন্তু সবচেয়ে লক্ষণীয় বিষয় হল, সে দেশে প্রত্যেকের গড় স্যালারি ৬ ডলার।

এছাড়া সেখানকার উচ্চস্তরের ব্যবসায়ীরা, ডলারে ব্যবসা করতে আগ্রহী হয়ে উঠছে। কিন্তু সে দেশের বহু সাধারণ মানুষের হাতেই মার্কিন ডলার নেই। তাই পরিস্থিতি হয়ে উঠছে আরও সঙ্গীন। ফলে এমন অবস্থা হয়ে উঠেছে যে, যুগলেরা কেউ বাধ্য হয়ে বাবা মায়ের বাড়িতেই প্রেম করতে বাধ্য হচ্ছে, আবার কেউ বাধ্য হয়ে গাছের আড়ালে চলে যাচ্ছেন। সে দেশের রাজধানী কারাকারের সেন্ট্রাল ইউনিভার্সিটির বাগানে প্রায়ই চোখে পড়ছে যুগলদের। যা কিনা রীতিমতো দৃষ্টিকটু।

বেশ কিছু যুবক যুবতীরা শুধুমাত্র অর্থনৈতিক অবস্থার কারণেই পার্ক বা গাছের আড়াল বেঁচে নিতে বাধ্য হচ্ছেন বলে জানা গিয়েছে। ২০ বছরের জন আল্ভারেজ জানাচ্ছেন, তাঁর নিজের পকেটের হাল এতটাই খারাপ যে, বাবা মায়ের বাড়িতেই সে তাঁর গার্লফ্রেন্ডকে নিয়ে রুমে ঢুকে পড়তে বাধ্য হয়েছে।

ভেনেজুয়েলার অর্থনৈতিক রিপোর্ট জানাচ্ছে, গত বছরে সে দেশে যত না বলিভার্স (ভেনেজুয়েলার মুদ্রা) লেনদেন হয়েছে, তার থেকে বেশি লেনদেন হয়েছে ডলারে। কিন্তু খুব কম সংখ্যক লোকেরাই এই ডলার ব্যবহার করতে পারছে। কারণ, অন্যদের ডলার ব্যবহারের সামর্থ্য নেই।

Print