পাকিস্তানকে হারাতে আত্মপ্রত্যয়ী বাংলাদেশ কোচ

সিল্কসিটিনিউজ ডেস্ক:

আসন্ন তিন ম্যাচ টি-টোয়েন্টি সিরিজে পাকিস্তানের মাটিতেই তাদের হারাতে চান বাংলাদেশ কোচ রাসেল ডমিঙ্গো। পাক সফর সামনে রেখে রোববার থেকে অনুশীলন ক্যাম্প শুরু করেছেন টাইগাররা। একমাত্র বিদেশি স্টাফ হিসেবে দলের সঙ্গে সফরে যাবেন ডমিঙ্গো। অনুশীলন চলাকালীন পাকিস্তান সফর নিয়ে কথা বলেন তিনি।

পাকিস্তানের মাটিতে তাদের হারানোর ক্ষমতা তার দলের আছে বলে আত্মপ্রত্যয় ব্যক্ত করেন ডমিঙ্গো। স্বাগতিকদের র‌্যাংকিংয়ের এক নম্বর দল মনে করিয়ে দিয়ে তিনি বলেন, তারা টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে বিশ্বের এক নম্বর দল। ওরা শোয়েব মালিক ও মোহাম্মদ হাফিজকে দলে ফিরিয়ে এনেছে। তবে মোহাম্মদ আমিরকে নেয়নি। কিন্তু আমরা জানি টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে পাকিস্তান অনেক ভালো দল। তাই পুরো আত্মবিশ্বাস নিয়ে আমাদের সেখানে যেতে হবে।

নিজেদের সবশেষ সফরে তিন ম্যাচ টি-টোয়েন্টি সিরিজের প্রথমটিতে ভারতকে পরাজিত করে বাংলাদেশ, যা ছিল ক্রিকেটের সংক্ষিপ্ত সংস্করণে টিম ইন্ডিয়ার বিপক্ষে টাইগারদের প্রথম জয়। কিন্তু শেষ পর্যন্ত ২-১ ব্যবধানে সিরিজ হেরে যায় তারা। তবে পুরো সিরিজে দুর্দান্ত লড়াই করে বাংলাদেশ, যা দলকে আত্মবিশ্বাস দিয়েছে বলে মনে করেন ডমিঙ্গো।

তিনি বলেন, আমাদের টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে উন্নতি হচ্ছে। আমরা জানি, এটি আমাদের কাছে অনেক বড় চ্যালেঞ্জ। বিশ্বের এক নম্বর দলের বিপক্ষে কতটা প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে পারি, আমরা সেটি দেখতে চাই। আমরা ভারতকে প্রায় পরাজিত করেছিলাম। সুতরাং আমরা দেখতে চাই, আরও ভালো করতে পারি কিনা। পাকিস্তানের মাটিতে তাদের হারাতে পারি কিনা।

সবশেষ পাঁচ দেখায় তিনবারই পাকিস্তানকে হারিয়েছে বাংলাদেশ, যা থেকেও আত্মবিশ্বাসী হয়ে উঠছেন সফরকারীরা। ডমিঙ্গো বলেন, পাকিস্তান সফরে আমার কোনো সমস্যা নেই। বেশ স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করছি আমি।

একই সঙ্গে তিনি জানিয়েছেন, টিম ম্যানেজমেন্টের অন্যান্য সদস্য, যারা পাকিস্তান সফর করবেন না; তাদেরও মিস করবেন। বাংলাদেশের প্রোটিয়া কোচ বলেন, আমার জন্য এটি সহজ ছিল। আমি বাংলাদেশের কোচ হিসেবে চুক্তিবদ্ধ হয়েছি। সুতরাং আমি ধারাবাহিকভাবে সব কিছু মনিটর করব। দলের উন্নতির চেষ্টা করব। সেটারই অপেক্ষায় আছি। আমি কখনও পাকিস্তানে যাইনি। এটিকে ভালো চ্যালেঞ্জ হিসেবে দেখছি। দেশটির ক্রিকেট সংস্কৃতি দেখতে চাই।

পাকিস্তান সফরে না যাওয়া দলের স্টাফদের সিদ্ধান্তের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে ডমিঙ্গো বলেন, এটি তাদের সিদ্ধান্ত। তবে খেলা চলবে। সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ খেলোয়াড়রা। কতক্ষণ আমাদের খেলোয়াড়রা থাকে, এটিই মূল বিষয়।

Print