বন্ধুর জন্মদিন পালন করতে গিয়ে শ্রীমঙ্গলে লাশ হলো স্কুলছাত্র

সিল্কসিটিনিউজ ডেস্ক:

মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলে ভুরভুরিয়া চা বাগান থেকে ইব্রাহিম মিয়া রকি (১৪) নামের এক স্কুলছাত্রের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

মঙ্গলবার সকালে উপজেলার বধ্যভূমি ৭১ সংলগ্ন ফিনলে টি কোম্পানির ভুরভুরিয়া চা বাগানের ভিতর থেকে এ লাশ উদ্ধার করা হয়।

নিহত রকি শহরের ১০ নাম্বার ভানুগাছ রোড এলাকার মাংস ব্যবসায়ী দুলাল মিয়ার ছেলে। সে শ্রীমঙ্গল ভিক্টোরিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির ছাত্র ছিল।

পুলিশ রকির লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মৌলভীবাজার সদর হাসপাতালে পাঠিয়েছে।

এ ঘটনায় জালালিয়া রোডের জালাল উদ্দিনের পুত্র সজিব ও একই এলাকার আলী আজগরের পুত্র সোহান নামের দুই যুবককে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়েছে।

নিহতের পিতা দুলাল মিয়া জানান, সোমবার রাত ৭টায় ৩টি মোটরসাইকেল নিয়ে রকির বন্ধু রিফাত, রনি, সোহান, অন্তর, সাব্বির ও স্টেশন এলাকার যাত্রাওয়ালীর মহিলার পুত্রসহ একটি জন্মদিনের পার্টিতে যাওয়ার জন্য ৫ হাজার টাকা নিয়ে বাসা থেকে বের হয়। এরপর থেকে তার আর খোঁজ পাওয়া যায়নি। সারা রাত থানাসহ তিনি বিভিন্ন স্থানে খোঁজাখুঁজি করে সকাল বেলায় শহরের মাইকিং বের করেন।

তিনি জানান, সকালে লোক মারফত খবর পান চা বাগানের ভিতরে এক যুবকের লাশ পড়ে রয়েছে। তিনি ও তার স্ত্রী গিয়ে একটি গাছের সঙ্গে গলায় বেল্ট ও মাফলার দিয়ে বাঁধা অবস্থায় তার ছেলে রকির লাশ শনাক্ত করেন।

এ ব্যাপারে শ্রীমঙ্গল থানার ওসি আবদুস ছালেক জানান, এটি একটি পরিকল্পিত হত্যাকাণ্ড। বন্ধুবান্ধব তাকে শ্বাসরোধে হত্যা করে পরে গাছের সঙ্গে বেঁধে রাখে।

তিনি আরও জানান, এ ঘটনায় জোড়ালো তদন্ত শুরু হয়েছে এবং খুব শিগগিরই ঘটনার সঙ্গে জড়িতরা ধরা পড়বে। এদিকে লাশ উদ্ধারের মর্মান্তিক ঘটনা জানার পর শহর ও আশপাশের এলাকা থেকে শত শত মানুষ ভিড় জমান এবং এক পর্যায়ে ভানুগাছ সড়কে যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়।

Print