রাজশাহী থেকে সাড়ে ৩ ঘণ্টা দেরিতে ছাড়লো পদ্মা, রাতে যাবে ধূমকেতু

November 14, 2019 at 10:10 pm

নিজস্ব প্রতিবেদক:

সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়ায় ‘রংপুর এক্সপ্রেস’ লাইনচ্যুত হওয়ার ঘটনায় রাজশাহী থেকে ঢাকাগামী আন্তঃনগর ট্রেনের ‘পদ্মা এক্সপ্রেস’র যাত্রা প্রথমে বাতিল করা হয়েছিল। তবে ঈশ্বরদী থেকে একটি রিলিফ ট্রেন ঘটনাস্থলে গিয়ে উদ্ধার কাজ শুরু করার পর পরিস্থিতি এখন অনেকটাই স্বাভাবিক বলে দাবি করেছে কর্তৃপক্ষ।

তাই সাড়ে ৩ ঘণ্টা বিলম্বে আজ বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার পর রাজশাহী রেলওয়ে স্টেশন থেকে রাজধানী ঢাকার উদ্দেশে ছেড়ে যায় আন্তঃনগর ট্রেন পদ্মা এক্সপ্রেস।

বিকেল ৪টায় ট্রেনটি রাজশাহী রেলওয়ে স্টেশন থেকে ঢাকার উদ্দেশে ছেড়ে যাওয়ার কথা ছিল। তবে নানান অনিশ্চয়তায় ছাড়ার ঠিক আগমুহূর্তে রাজশাহী থেকে ঢাকাগামী পদ্মা এক্সপ্রেস ট্রেনটির যাত্রা বাতিল করা হয়।

এ বিষয়ে রাজশাহী রেলওয়ে স্টেশনের ম্যানেজার আব্দুল করিম বলেন, সিরাজগঞ্জে দুর্ঘটনার পর উদ্ধারকাজ শুরু এবং শেষ হতে গভীর রাত পর্যন্ত সময় লাগতে পারে বলে প্রথমে ধারণা করা হচ্ছিল। তবে এরইমধ্যে ঈশ্বরদী জংশন থেকে একটি রিলিফ ট্রেন সিরাজগঞ্জের দুর্ঘটনাস্থলে পৌঁছেছে। উদ্ধারকাজও শুরু করেছে।

তাই রাতেই ঢাকা-রাজশাহী রেলপথ আবারও সচল হওয়ার সম্ভাবনা দেখছেন তারা। আর এজন্যই বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় পদ্মা এক্সপ্রেস ট্রেনটি ঢাকা অভিমুখে ছাড়ার সিদ্ধান্ত নেয় কর্তৃপক্ষ। তাদের দাবি, এই ট্রেনটি সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়ায় পৌঁছানোর আগেই ঢাকা-রাজশাহী রেলপথের ওপর লাইনচ্যুত হওয়া ‘রংপুর এক্সপ্রেস’র বগিগুলো উদ্ধার করা সম্ভব হবে। ফলে এক্সপ্রেস ট্রেনটি কিছুটা বিলম্ব হলেও ঢাকা পৌঁছাতে কোনো সমস্যা হবে না।

তবে রাজশাহী-ঢাকার মধ্যে চলাচলকারী রাতের আন্তঃনগর ধূমকেতু এক্সপ্রেস ট্রেনটি নির্ধারিত ১১টা ২০ মিনিটের পরিবর্তে তিনঘণ্টা বিলম্বে চলাচল করবে। একইভাবে সকালের সিল্কসিটি এক্সপ্রেসসহ পরের ট্রেনগুলোও আপাতত শিডিউল বিপর্যয়ের মধ্যেই চলবে।

এদিকে, রাতে রাজশাহী থেকে ঢাকা অভিমুখে পদ্মা এক্সপ্রেস ট্রেন সন্ধ্যা সাড়ে সাতটায় ছেড়ে যাওয়ার খবরে দুর্ভোগের মধ্যে থাকা সাধারণ যাত্রীদের মধ্যে স্বস্তি ফিরে আসে। যাত্রা বাতিলের সিদ্ধান্তের পর যারা ট্রেনের টিকিট ফেরত দিয়েছিলেন তারা আবার টিকিট কাটার জন্য কাউন্টারের সামনে লম্বা লাইন দেন।

আর যেসব যাত্রীরা টিকিট ফেরত দেওয়ার জন্য লাইনে দাঁড়িয়েছিলেন তারা স্টেশনের প্ল্যাটফর্মের ফিরে ফিরে যান এবং ট্রেনে চেপে বসেন। ট্রেনটি বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার পর ঢাকার উদ্দেশে রাজশাহী রেলওয়ে স্টেশন ছেড়ে যায়। এর মধ্যে দিয়ে ঢাকার সাথে রাজশাহীসহ উত্তরাঞ্চলের ট্রেন চলাচল আবারও স্বাভাবিক হয়।

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবায় ভয়াবহ ট্রেন দুর্ঘটনার রেশ কাটতে না কাটতে আজ বৃহস্পতিবার (১৪ নভেম্বর) আবারও সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়ায় রংপুর এক্সপ্রেস ট্রেনের ইঞ্জিনসহ ছয়টি বগি লাইনচ্যুত হওয়ার ঘটনা ঘটে। এতে ট্রেনের ইঞ্জিনে আগুন লেগে ৪টি বগি পুড়ে যায়। এ ঘটনায় ট্রেনের লোকো মাস্টার এবং সহকারী লোকো মাস্টার আহত হয়েছেন। তাদের স্থানীয় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

এর আগে, বৃহস্পতিবার দুপুরের দিকে এ দুর্ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে উদ্ধার কাজ চালাচ্ছে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা। ঢাকা থেকে রংপুরগামী ৭৭১ রংপুর এক্সপ্রেসের ইঞ্জিন লাইনচ্যুত হয়ে অপর তিনটি বগিকে ধাক্কা দেয়। এতে ট্রেনের ইঞ্জিনে আগুন ধরে যায়। ফলে ঢাকার সঙ্গে উত্তরবঙ্গের রেল যোগাযোগ বন্ধ রয়েছে।

এদিকে, উল্লাপাড়ায় রংপুর এক্সপ্রেস দুর্ঘটনার ঘটনায় পশ্চিমাঞ্চল রেলওয়ের চিফ অপারেটিং সুপারিনটেনডেন্ট শহিদুল ইসলামকে প্রধান করে চার সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। সাত কর্মদিবসের মধ্যে তাদেরকে প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

স/অ

Print