দুর্গাপুরে বই আনতে গিয়ে ধর্ষণের শিকার, ৯ মাস পর সন্তান প্রসব

November 8, 2019 at 7:28 pm

দুর্গাপুর প্রতিনিধি:
দুর্গাপুরে ধর্ষনের শিকার হয়ে (১৪) বছরের এক মাদ্রাসার শিক্ষার্থী সন্তান প্রসব করেছেন। ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার কিশোরপুর গ্রামে। এ দিকে ঘটনার পর থেকেই ধর্ষক সজীব আহম্মেদ বাড়ি ছেড়ে পলাতক রয়েছেন। সজীব একই গ্রামের আবু সাইদের পুত্র। তারা দু’জনই শ্রীধরপুর দাখিল মাদরাসার নবম শ্রেনীর শিক্ষার্থী বলে জানা গেছে।

বৃহস্পতিবার রাত ৮টার দিকে থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) খুরশীদা বানু কনা ওই কিশোরী ও তার সন্তানকে উদ্ধার করে দুর্গাপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে।

দুর্গাপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎধীন ওই কিশোরী জানান, তার সাথে একই গ্রামের সজীব নামের এক ছেলে শ্রীধরপুর দাখিল মাদরাসায় নবম শ্রেনিতে পড়তেন। তারা একই ক্লাসে পড়াশোনার সুবাদে প্রায় ৯মাস আগে সে সজীবের বাড়িতে গাইড বই আনতে যায়। এ সময় সজীব বাড়ি ফাঁকা পেয়ে তাকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। পরে ওই কিশোরী কাউকে না জানিয়ে লোকলজ্জার ভয়ে বাড়ি চলে আসে। এরপর সে অর্ন্তস্বত্বা হয়ে পড়ে। বৃহস্পতিবার দুপুর ২টার দিকে ওই কিশোরী নিজ বাড়িতে পুত্র সন্তান প্রসব করে। এরপর বিষয়টি টের পেয়ে ধর্ষক সজীব বাড়ি ছেড়ে পলাতক রয়েছেন।

দুর্গাপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) খুরশীদা বানু কনা জানান, প্রাথমিকভাবে জিজ্ঞাসাবাদে ওই কিশোরী তার সহপাঠী একই এলাকার সজীব নামের এক ছেলের ধর্ষনের শিকার হয়ে সে সন্তান প্রসব করেছে বলে আমাদের জানিয়েছে। যেহেতু ওই কিশোরীর সন্তান এখন অসুস্থ এ জন্য মা ও ছেলেকে থানার পুলিশ উদ্ধার করে দুর্গাপুর স্বাস্থ্য কমেেপ্লক্সে ভর্তি করেছে।

ওসি আরো বলেন, তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

স/অ

Print