বিএনপি আবরার হত্যাকে আন্দোলনের ইস্যু করতে চায়: কাদের

October 15, 2019 at 11:18 pm

সিল্কসিটিনিউজ ডেস্ক:

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, বিএনপি বুয়েটের শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদ হত্যাকাণ্ডকে আন্দোলনের ইস্যু করতে চায়। আবরার হত্যাকাণ্ড নিয়ে তারা দেশে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির চেষ্টা করছে। বিএনপি আসলে এ হত্যাকাণ্ডের বিচার চায় না।

মঙ্গলবার সচিবালয়ে সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে সংবাদ সম্মেলনে ওবায়দুল কাদের এ কথা বলেন।

সেতুমন্ত্রী বলেন, সরকার বুয়েটের ছাত্রদের সব দাবি মেনে নিয়েছে। আবরার হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে সঙ্গে পুলিশ ব্যবস্থা নিয়েছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এ ঘটনার বিচার দ্রুত হবে বলে আশ্বাস দিয়েছেন। আবরার হত্যাকাণ্ডে যারা জড়িত আজ আর কাল, আমার মতে তাদের মৃত্যুদণ্ডই হওয়া উচিত। আদালত কী করবে জানি না। বুয়েট শিক্ষার্থীদের সব দাবি মেনে নেওয়ায় তাদের এখন আন্দোলন বাদ দিয়ে ক্লাসে ফিরে যাওয়া উচিত বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

ওবায়দুল কাদের বলেন, এই হত্যাকাণ্ড নিয়ে বিএনপির কোনো উদ্বেগ নেই, এটি নিয়ে তারা আন্দোলন করতে চায়। তা না হলে তারা এখনও কেন উস্কানি দেবে? বুয়েট শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের পেছনে তাদের ভূমিকা আছে কি না জানতে চাইলে তিনি বলেন, না সেভাবে বলব না, সাধারণ শিক্ষার্থীদের অনেক আবেগ আছে, সেন্টিমেন্ট আছে। আমি তাদের অনুরোধ করেছি পড়াশোনায় ফিরে যাওয়ার জন্য। বিএনপি তাদের নেত্রী খালেদা জিয়ার চিকিৎসার কথা যতটা ভাবছে, তার চেয়ে বেশি দেশে নৈরাজ্য সৃষ্টির কথা ভাবছে মন্তব্য করে তিনি বলেন, বিএনপি এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে দেশে সহিংসতা করলে অবস্থা বুঝে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

যাদের কারণে এই মেধাবী শিক্ষার্থীরা ‘খুনি’ হয়েছে তাদের বিষয়ে কী ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে জানতে চাইলে ওবায়দুল কাদের বলেন, ছাত্রলীগ সার্বিকভাবে তো এ ঘটনার সঙ্গে জড়িত না। এ ধরনের হত্যাকাণ্ড ক্ষতিকর, সরকার নিশ্চয়ই বিব্রত হয়েছে। এটার সাথে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগকে জড়িত করা ঠিক নয়। তবে বিচ্ছিন্নভাবে এ ধরনের ঘটনা যারা ঘটিয়েছে ‘কেইস টু কেইস’ বিচারও হচ্ছে। গুটি কয়েকের জন্য গোটা দলকে তো দায়ী করতে পারি না।

সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, ছাত্ররাজনীতি বন্ধ করে দেওয়া সমাধান নয়। তবে বুয়েটে ছাত্ররাজনীতি বন্ধ হলে সে ব্যাপারে সরকারের কোনো আপত্তি নেই। কারণ, এটি বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের বিষয়। ওবায়দুল কাদের বলেন, যারা দেশে অপরাধ করবে, তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। ছাড় দেওয়া হবে না। যেসব কাউন্সিলরের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ উঠবে, তারা ভবিষ্যতে মনোনয়ন পাবেন না জানিয়ে তিনি বলেন, গুটি কয়েক লোকের কারণে আওয়ামী লীগের নেতৃত্বাধীন সরকারের অর্জন ম্লান হতে দেওয়া যায় না। আওয়ামী লীগের তৃণমূল থেকে কেন্দ্র পর্যন্ত কমিটিতে বিতর্কিত ব্যক্তিদের স্থান দেওয়া হবে না অন্য এক প্রশ্নের জবাবে চট্টগ্রামে মেট্রোরেল নির্মাণ করা হবে বলেও জানান সেতুমন্ত্রী।

বিএনপি নেতা অবসরপ্রাপ্ত মেজর হাফিজ উদ্দিনকে গ্রেফতারের মাধ্যমে দলটির বিষয়ে সরকার কঠোর অবস্থানে যাওয়ার ইঙ্গিত দিল কি না জানতে চাইলে ওবায়দুল কাদের বলেন, হার্ডলাইনে যাওয়ার পক্ষপাতি তারা নন। তারা চান না কোন প্রকার সংঘাতে যেতে।

Print