মিশা-জায়েদের বিরুদ্ধে মুখ খুললেন পপি

October 10, 2019 at 4:24 pm

সিল্কসিটিনিউজ ডেস্ক:

বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির দ্বিবার্ষিক নির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে আগামী ২৫ অক্টোবর। নির্বাচন যতই ঘনিয়ে আসছে, ততই কাদা ছোড়াছুড়ি বাড়ছে। গত নির্বাচনে ক্ষমতায় আসেন মিশা সওদাগর ও জায়েদ খান প্যানেল। তাদের প্যানেল থেকে কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য হিসেবে নির্বাচিত হন চিত্রনায়িকা পপি। শুরুতে সম্পর্কটা মধুর থাকলেও এখন বাতাস বইছে উল্টো দিকে।

সম্প্রতি সমিতির সভাপতি মিশা সওদাগর একটি বেসরকারি টেলিভিশনে সাক্ষাৎকারে জানান, অস্বচ্ছল শিল্পীদের তহবিল গঠনের জন্য আয়োজিত অনুষ্ঠান থেকে ৫০ হাজার করে টাকা নিয়েছেন চিত্রনায়ক ফেরদৌস, রিয়াজ ও পপি। এ নিয়ে তিনি ক্ষোভও প্রকাশ করেন। তবে বিষয়টি অস্বীকার করেছেন জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্ত অভিনেত্রী পপি।

পপি বলেন, ‘কে টাকা নিয়েছে? এর কোনো প্রমাণ কি তাদের কাছে আছে? শুধু বললেই হয় না। এগুলো মিথ্যে কথা। সমিতির জন্য আমি অনেক অনুষ্ঠান করেছি। শুধু আমিই না রিয়াজ, ফেরদৌস, পূর্ণিমা, অপুসহ আরও অনেকেই এসব অনুষ্ঠানে অংশ নিয়েছেন। এগুলো থেকে এক টাকাও পারিশ্রমিক নিইনি আমি। শুধু তাই নয়, সঙ্গে থাকা সহশিল্পীদের টাকাও আমি নেইনি। সমিতির জন্য কাজ করছি, এই ভেবে কোনো কথাও বলিনি।’

সঙ্গে যোগ করে পপি আরও বলেন, ‘দুই বছরে অনেক কিছু দেখেছি। যখন কোথাও থেকে টাকা আনার দরকার হয়, তখন শিল্পীদের ডাক পড়ে। এরপর আর কোনো খবর নেই তাদের। সমিতির পক্ষ থেকে শিল্পীদের টাকা দেওয়ার সময় দেখি, শুধু তাদের ছবি। সেই ছবি দিয়ে ফেসবুক ভরিয়ে ফেলে তারা। এভাবে কী শিল্পীদের সহযোগিতা করার দরকার আছে। আমি মনে করি, এভাবে প্রচার করা মানে শিল্পীদের ছোট করা।’

ক্ষোভ নিয়ে পপি আরও বলেন, ‘দুই বছরে অনুষ্ঠান করে অনেক টাকা ফান্ডে এসেছে। সে টাকা কোথায়, কীভাবে খরচ করা হয়েছে, আমরা কেউ তা জানি না। জানতে চাই, সেই টাকা কোথায়? দুই বছরে লাখ লাখ টাকা এসেছে সমিতিতে, হিসাব চাই।’

নির্বাচনে অংশ নেওয়ার প্রসঙ্গে তিনি আরও বলেন, ‘গত দুই বছর সমিতির সঙ্গে থেকে অনেক কিছু দেখেছি ও শিখেছি। আসলে এসব দেখে নির্বাচন করার ইচ্ছাটা মরে গেছে।’

Print