আবরারকে হত্যায় প্রমাণ হয়, দেশে বাক স্বাধীনতা নেই: রাবি শিক্ষার্থীরা

October 9, 2019 at 7:21 pm

নিজস্ব প্রতিবেদক, রাবি:

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) শিক্ষার্থীরা বলেন, ‘আবরারকে হত্যার মাধ্যমে প্রমাণ হয় যে দেশে কোনো বাক স্বাধীনতা নেই। আরও প্রমাণ হয় যে কেউ যদি দুর্নীতি অনিয়মের বিরুদ্ধে কথা বলে তাহলে তার পরিণতি হবে মৃত্যু। ছাত্রলীগ নেতাকর্মীদের নৃশংসতায় এক মাকে সন্তানহারা হতে হয়েছে, দেশ একজন মেধাবী হারিয়েছে। আমরা জড়িতদের দ্রুত সর্বোচ্চ শাস্তি চাই, যাতে করে আর কোনো মাকে সন্তানহারা হতে না হয়। ”

বুয়েট শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদ হত্যার প্রতিবাদ, জড়িতদের বিচার এবং ক্যাম্পাসের অনিয়ম ও দুর্নীতির বিরুদ্ধে মানববন্ধন, বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করেছে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা। বুধবার সকালে ‘দুর্নীতিবিরোধী শিক্ষকসমাজ’ এবং ‘সন্ত্রাস ও দুর্নীতির বিরুদ্ধে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়’ ব্যানারে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে বিক্ষোভ মিছিল, সমাবেশ ও মানববন্ধন কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হয়।

ক্যাম্পাস সূত্রে জানা যায়, সকাল ১১টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ তাজউদ্দিন আহমেদ সিনেট ভবনের সামনে ‘দুর্নীতিবিরোধী শিক্ষকসমাজ’ ব্যানারে প্রতিবাদী মিছিল করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকরা। তারা মিছিল নিয়ে ক্যাম্পাসের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে। মিছিল শেষে একই জায়গায় সমাবেশ করেন তারা।

এতে অর্থনীতি বিভাগের অধ্যাপক ইলিয়াস হোসেন বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষক নিয়োগ ও বিভিন্ন কর্মকাণ্ডের নামে যেসব অনিয়ম চলছে তা বঙ্গবন্ধুর আদর্শের পরিপন্থী। আমরা এই আদর্শ রক্ষার জন্য আন্দোলন করছি। আমরা চাই না বিশ্ববিদ্যালয়ের মতো দেশের উচ্চ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে কোনো ধরনের অনিয়ম চলুক। কর্মসূচি থেকে দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দেন তিনি। এ সময় শিক্ষকরা নিয়োগে অনিয়ম ও দুর্নীতি প্রসঙ্গে প্রতিবাদ ও তদন্তের দাবি সম্বলিত প্ল্যাকার্ড প্রদর্শন করেন। একই সময় বিশ্ববিদ্যালয়ের গ্রন্থাগারের সামনে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেন শিক্ষার্থীরা।

মানববন্ধন শেষে শিক্ষার্থীরা ক্যাম্পাসে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করেন।

স/অ

 

Print