মান্দায় সালিশ বৈঠকে প্রেমিকের আত্মহত্যার চেষ্টা, জ্ঞান হারিয়ে হাসপাতালে প্রেমিকাও

September 21, 2019 at 9:00 pm

নিজস্ব প্রতিবেদক:

নওগাঁর মান্দায় সালিশ বৈঠকে সাগির আহমেদ মিলন (২০) নামে এক প্রেমিক ব্লেড দিয়ে গলা কেটে আত্মহত্যার চেষ্টা চালিয়েছে। মুমূর্ষু অবস্থায় তাকে মান্দা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। শনিবার বিকেলে উপজেলার গনেশপুর ইউনিয়নের উত্তর শ্রীরামপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

এদিকে প্রেমিক মিলনের আত্মহত্যা চেষ্টার ঘটনায় প্রেমিকা উম্মে শাহিনুর বুলবুলিও (১৯) জ্ঞান হারিয়ে ফেলেন। তাকেও মান্দা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

প্রেমিক মিলন উত্তর শ্রীরামপুর গ্রামের সাদেকুল ইসলামের ছেলে ও প্রেমিকা বুলবুলি সৈয়দপুর গ্রামের মৃত আব্দুস সাত্তারের মেয়ে। তারা দুজনেই সতিহাট কেটি উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজ থেকে এবছর এইচএসসি পরীক্ষায় অংশ নিয়েছিল। পরীক্ষার শেষ দিনে কেন্দ্র থেকে গোবিন্দপুর গ্রামের সেকেন্দার আলীর মোটরসাইকেলে চড়ে তারা অজানার উদ্দেশ্যে পাড়ি দেয়।

স্থানীয়রা জানান, দীর্ঘদিন পালিয়ে থাকার পর গত ১৩ সেপ্টেম্বর তারা বাড়ি ফিরে আসে। এনিয়ে শনিবার বিকেলে গনেশপুর ইউনিয়নের নারী সদস্য স্বপ্না বেগমের বাড়িতে সালিশ বৈঠকের আয়োজন করা হয়।

সালিশে সভাপতিত্বে করেন ইউপি সদস্য স্বপ্না বেগম। সালিশ চলাকালে প্রেমিকা বুলবুলিকে তার মা বাড়ি নিয়ে যাবার চেষ্টা করে। এসময় প্রেমিক মিলন একটি ব্লেড দিয়ে গলা কেটে আত্মহত্যার চেষ্টা চালায়।

ইউপি সদস্য স্বপ্না বেগম সালিশ বৈঠকের কথা স্বীকার করে বলেন, অনাকাঙ্খিত এ ঘটনায় আমি হতভম্ব হয়ে পড়ি। পরে রক্তাক্ত মিলনকে উদ্ধার করে মান্দা হাসপাতালে ভর্তি করিয়েছি। মিলনের রক্তাক্ত অবস্থা দেখে এসময় প্রেমিকা বুলবুলি অজ্ঞান হয়ে পড়লে তাকেও একই হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। সালিশে এলাকার শতাধিক ব্যক্তি উপস্থিত ছিলেন বলে জানান তিনি।

মিলনের পরিবার সুত্র জানায়, তারা পালিয়ে ঢাকায় অবস্থানকালে বিয়ের বন্ধনে আবদ্ধ হয়েছে। দীর্ঘদিন পালিয়ে থাকার পর গত ১৩ সেপ্টেম্বর তারা বাড়ি ফিরে আসে। এরপর থেকে মেয়ে পরিবারের লোকজন বিভিন্নভাবে তাদের হুমকি-ধামকি দিয়ে আসছিল।

মান্দা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোজাফফর হোসেন জানান, বুলবুলি উধাও হওয়ার ঘটনায় তার নানা আবু আহমেদ মাষ্টার থানায় একটি সাধারণ ডাইরি করেন। শনিবার বিকেলে সালিশে আত্মহত্যার চেষ্টার সংবাদ পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। এ প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়ার কথা জানান তিনি।

স/অ

Print