নিজস্ব প্রতিবেদক:

রাজশাহী পশ্চিমাঞ্চল রেলওয়ের প্রতিটি ট্রেনেই শিডিউল বিপর্যয়ের ঘটনা ঘটেছে। স্টেশনগুলো দুই মিনিটের জায়গায় ২০ থেকে ২৫ মিনিট থামায় শিডিউল বিপর্যয়ের কারণ বলে জানিয়েছেন রাজশাহী ট্রেন স্টেশন ম্যানেজার আব্দুল করিম। তিনি বলেন, ট্রেনগুলোর ৪ থেকে ৫ ঘন্টা করে লেট রয়েছে।

আজ রোববার রাজশাহী রেলওয়ে স্টেশন থেকে বিভিন্ন গন্তব্যের ট্রেন নির্ধারিত সময়ের চেয়ে দেরিতে ছাড়ায় যাত্রীদের মধ্যে ক্ষোভ দেখা দিয়েছে।

জানা গেছে, গতকাল শনিবার রাতের ধুমকেতু ট্রেন আট ঘন্টা দেড়িতে আজ সকাল ৮টায় ছেড়ে গেছে। এছাড়া সিল্কসিটি ট্রেন ৬ ঘন্টা ও পদ্মা সাড়ে ৪ ঘন্টা শিডিউল বিপর্যয়। এসব ট্রেনের মধ্যে শুধুমাত্র বনলতা এক্সপ্রেস সঠিক সময়ে ছেড়ে গেছে। গত শুক্রবার রাত ১১টা ২০ মিনিটের ধূমকেতু এক্সপ্রেস রাত ৪টায় এবং শনিবার সকাল ৭টা ৪০ মিনিটের সিল্কসিটি এক্সপ্রেস ট্রেন বেলা ১১টা ৪০ মিনিটে ঢাকার উদ্দেশ্যে ছেড়ে গেছে।

এদিকে, প্রতিটি সিডিউল বিপর্যয়ের কারণে স্টেশনে বসে ঘণ্টার পর ঘণ্টা ট্রেনের অপেক্ষায় প্রহর গুণছেন যাত্রীরা। যাত্রীরা জানায়, বাংলাদেশে পরিবহনের সক্ষমতার চেয়ে যাত্রী বেশি। অতিরিক্ত সক্ষমতা ব্যবহার করে যাত্রীদের সেবা দিচ্ছে রেলওয়ে। সার্বিকভাবে দায়িত্ব ভাগ করে দেয়া হয়েছে। ঈদের পাঁচদিন যাত্রী পরিবহন করতে সক্ষমতা অনুযায়ী সর্বোচ্চ চেষ্টা করেছি।

রবিন নামের এক যাত্রী বলেন, যানি না কখন ঢাকায় পৌঁছাব। শিডিউল বিপর্যয়ের চক্করে সারাদিন স্টেশনে গেলো।

 

স/আ

Print