ধান সংগ্রহে দুর্গাপুরে লটারিতে কৃষক নির্বাচন

August 1, 2019 at 9:44 pm

দুর্গাপুর প্রতিনিধি: রাজশাহীর দুর্গাপুরে সরকারিভাবে অভ্যন্তরীণ বোরো সংগ্রহের লক্ষ্যে উপজেলার প্রান্তিক কৃষকদের মাঝ থেকে লটারির মাধ্যমে কৃষকের নাম বাছাই প্রক্রিয়া শুরু করেছেন উপজেলা খাদ্য শস্য সংগ্রহ ও ধান ক্রয় কমিটি। সরকারি গুদামে প্রান্তিক কৃষকরা ধান দিয়ে ন্যায্য দাম পাওয়ায় তাদের মুখে হাসি দেখা দিয়েছে।

বৃহস্পতিবার বিকালে উপজেলা ৭ নম্বর জয়নগর ইউনিয়ন পরিষদে উন্মুক্ত প্রান্তিক কৃষকদের উদ্বুদ্ধকরণ সভা করা হয়। এসময় লটারির মাধ্যমে প্রান্তিক কৃষকের নাম নির্ধারণ করেন উপজেলা খাদ্য শস্য সংগ্রহ ও ধান ক্রয় কমিটি সভাপতি ও উপজেলা নিবার্হী কর্মকর্তা লিটন সরকার।
উপজেলা খাদ্য গুদামের (ভারপ্রাপ্ত) কর্মকর্তা মিজানুর রহমান জানান, দুর্গাপুর খাদ্য গুদামে এবার প্রথম ধাপে ২৬ টাকা কেজি দরে ১৮৪ টন ধান কেনা হয়। দ্বিতীয় ধাপে ২৬ টাকা দরে ৩০৭ টন ক্রয়ের লক্ষমাত্রা ধরা হয়েছে। উপজেলার একটি পৌরসভা ও ৭টি ইউনিয়নে কৃষি কার্ডধারী প্রায় ২৫ হাজার কৃষক রয়েছে।
তিনি আরো জানান, এই বিপুল সংখ্যক কৃষকের নিকট থেকে ধান ক্রয় সম্ভব না হওয়ায় লটারির মাধ্যমে ৩০৭ জন প্রান্তিক কৃষক নির্বাচন করা হয়েছে। নির্বাচিত কৃষকগণ সরকারি গুদামে ২৬ টাকা কেজি দরে এক টন হারে ধান বিক্রি করতে পারবেন।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা লিটন সরকার জানান, ধান সংগ্রহে কোন প্রকার অনিয়ম যেন না হয় সে জন্য লটারির মাধ্যমে কৃষকের নাম নির্ধারণ করা হয়েছে। এমনকি উপজেলার প্রান্তিক কৃষকরা যেন ধানের ন্যায্য দাম পায়, মধস্বত্ব ভোগিরা যেন কৃষকদের প্রতারিত করতে না পারে, সে জন্য সরেজমিনে গিয়ে প্রকাশ্যে কৃষকদের নিয়ে লটারি করে নাম নির্ধারণ করা হচ্ছে।

তিনি জানান, গত মঙ্গলবার থেকে উপজেলার পৌরসভা ও ইউনিয়নে গিয়ে প্রান্তিক কৃষকদের নাম নির্ধারণ করা হচ্ছে ও সরকারি গুদামে ধান সংগ্রহ করা হচ্ছে।

কৃষক উদ্বুদ্ধকরণে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা লিটন সরকারের সভাপতিত্বে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মশিউর রহমান, উপজেলা খাদ্য কর্মকর্তা আব্দুস সালাম বিশ্বাস, খাদ্য গুদামের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মিজানুর রহমান, বিভিন্ন ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ও কৃষকরা।

স/শা

Print