রাজশাহীতে দীর্ঘ প্রত্যাশিত বৃষ্টি, জনজীবনে স্বস্তি

July 23, 2019 at 8:41 pm

নিজস্ব প্রতিবেদক:

আষাঢ়ের পর শ্রাবণও যেন রাজশাহীতে ফাকি দিচ্ছিল। বৃষ্টির দেখা মেলেনি সেভাবে। মানুষ মনে করেছিল, হয়তো শ্রাবণে বৃষ্টির মাধ্যমে ঠাণ্ডা হবে রাজশাহীর আবহাওয়া। কিন্তু একটুও পরিবর্তন হয়ে ছিলো না।

উল্টো রাজশাহীতে ঘরে-বাইরে সর্বত্র আগুনের উত্তাপ ছিল। কোথাও এতটুকু স্বস্তি ছিল না, আগুন গরমে হাঁসফাঁস ধরে গিয়েছিলো প্রাণ-প্রকৃতির। গত কয়েকদিন ধরেই তীব্র তাপদাহে জনজীবন প্রায় বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছিল। বৃষ্টির জন্য পদ্মাপাড়ের মানুষের মধ্যে পড়ে গিয়েছিল হাহাকার।

সেই দীর্ঘ প্রত্যাশায় আশার প্রদীপ হয়ে আজ মঙ্গলবার রাক ৮টায় দেখা দিলো স্বস্তির বৃষ্টি। এ বৃষ্টিতে নগরজীবনে নেমে এসেছে স্বস্তি ও আনন্দ।

মঙ্গলবার সকাল থেকেই মেঘলা ছিল আকাশ। সকালে কিছুটা ঠাণ্ডা ছিল আবহাওয়া। তবে বেলা বাড়ার সাথে সাথে তাপ বাড়তে থাকে। আবার বিকালের থেকে আকাশ মেঘলা হয়। আর অবশেষে রাত ৮টার দিকে শুরু হয় ‍মুষলধারে বৃষ্টি। আর এ বৃষ্টি স্বস্তি এনে দেয় জনজীবনে।

রাজশাহী আবহাওয়া অফিসের পর্যবেক্ষক নজরুল ইসলাম জানান, সন্ধ্যা ৭টা ৪০ মিনিট থেকে বৃষ্টি শুরু হয়। রাত ১০টা পর্যন্ত তারা ১৬ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করেছেন। এর আগে গত ১৬ জুলাই রাজশাহীতে ৭ দশমিক ৮ মিলিমিটার বৃষ্টি হয়েছিল।

মঙ্গলবার রাজশাহীতে সর্বোচ্চ তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে ৩৪ দশমিক ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস। আর ভোরে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা পাওয়া গেছে ২৭ দশমিক ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

এদিকে, বছরজুড়েই এবার রাজশাহীতে প্রচণ্ড তাপদাহ চলছে। সবকিছুই যেন হার মানছে এর কাছে। এবার রাজশাহীতেই দেশের সর্বোচ্চ তাপমাত্রাও রেকর্ড করা হয়।

স/অ

Print