ভাঙ্গুড়ায় দুধ সংগ্রহ বন্ধ রাখায় বিপাকে খামারিরা

July 14, 2019 at 9:23 pm

সিল্কসিটিনিউজ ডেস্ক:

পাবনার ভাঙ্গুড়া পৌর সদরের জগাতলা বাজারে অবস্থিত ব্র্যাক চিলিং সেন্টারে দুধ সংগ্রহ বন্ধ রাখা হয়েছে। ফলে হাজার হাজার লিটার দুধ নিয়ে বিপাকে পড়েছেন খামারিরা। এ অবস্থায় তারা পানির দামে দুধ বিক্রি করতে বাধ্য হচ্ছেন। খামারিদের অভিযোগ, কোনো নোটিশ ছাড়াই খামারি বা কালেকটিং ম্যানেজারের কাছ থেকে দুধ সংগ্রহ বন্ধ রাখা হয়েছে।

এ ব্যাপারে চিলিং সেন্টারের ব্যবস্থাপক খোরশেদ আলম বলেন, দুধ ক্রয় বন্ধ রাখার বিষয়ে কিছু বলতে পারব না। তবে খামারিদের সঙ্গে আলোচনায় ওই চিলিং সেন্টারের বিরুদ্ধে নানা অভিযোগ উঠে এসেছে।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, এলাকার কতিপয় অসাধু ব্যবসায়ী কিছুদিন থেকে এখানকার ব্র্যাক, আকিজ, মিল্কভিটা ও প্রাণের চিলিং সেন্টারে ভেজাল দুধ বিক্রি করছে।

কয়েকজন খামারি বলেন, নকল দুধ তৈরির কারিগর সঞ্জয় ঘোষ বৃহস্পতিবার আটকের পূর্ব মুহূর্ত পর্যন্ত ব্র্যাক চিলিং সেন্টারে ভেজাল দুধ বিক্রি করত।

তারা অভিযোগ করে বলেন, ভাঙ্গুড়ার একটি কোম্পানির চিলিং সেন্টারও ওই ভেজাল দুধ ক্রয় করত। এরপর থেকে এখানে দুধের ল্যাক্টমিটার রিডিংয়ের পরিমাপক ধরা হয়েছে ২৯। অথচ বর্তমানে এই এলাকায় উৎপাদিত দুধে ল্যাক্টমিটার দেখাচ্ছে মাত্র ২৪ থেকে ২৬। এ কারণে তাদের দুধ ক্রয় বন্ধ রাখা হয়েছে।

পারভাঙ্গুড়া গ্রামের দুধের কালেকটিং ম্যানেজার হারুন আলী বলেন, ব্র্যাকের আওতায় আমরা ২৬ জন ম্যানেজার ও ৫১ জন খামারি দৈনিক সাত হাজার ৫শ’ লিটার দুধ সরবরাহ করতাম। হঠাৎ দুধ না নেওয়ায় মারাত্মকভাবে আর্থিক ক্ষতির সম্মুখীন হয়েছি। খামারি নুর সাঈদ ও গোলজার হোসেন বলেন, আমাদের গাভীর দুধ বিশুদ্ধ হওয়া সত্ত্বেও ব্র্যাক ক্রয় বন্ধ রাখায় মহাবিপদে পড়েছি। তাই দ্রুত এ সমস্যা সমাধানের জন্য তারা ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

Print