শিবগঞ্জে পঁচা গম সংগ্রহের অভিযোগে ছাত্রলীগ-যুবলীগের বাধায় সরবরাহ বন্ধ

May 15, 2019 at 10:50 pm

নিজস্ব প্রতিবেদক, চাঁপাইনবাবগঞ্জ:

চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জে কৃষকের কাছ থেকে ২৮ টাকা দরে ৩ টন গম সংগ্রহ কার্যক্রমের উদ্বোধনের পর পঁচা গম সংগ্রহ করা হচ্ছে এমন অভিযোগে তা বন্ধ করে দিয়েছে ছাত্রলীগ ও যুবলীগের নেতা কর্মীরা। এনিয়ে স্থানীয় আওয়ামী লীগ ও ছাত্রলীগ-যুবলীগের দু’গ্রুপের মধ্যে বিক্ষোভ ও হট্টগোল সৃষ্টি হয়।

এর আগে বুধবার দুপুরে শিবগঞ্জ খাদ্য গুদামে কৃষকদের কাছ থেকে ৩ টন গম সংগ্রহের মধ্য দিয়ে কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন স্থানীয় সংসদ সদস্য ডা. সামিল উদ্দিন আহমেদ শিমুল।

উদ্বোধনী কার্যক্রম শেষে বিকেল সাড়ে ৩টার দিকে খাদ্য গুদামের সামনে ট্রলি ভর্তি পঁচা গম সংগ্রহের খবর ছড়িয়ে পড়লে স্থানীয় ছাত্রলীগ ও যুব লীগের কর্মীরা বিক্ষোভ করে প্রতিবাদ জানিয়ে শ্লোগান দিতে থাকে।

শিবগঞ্জ উপজেলা ঠিকাদার সমিতির সাধারন সম্পাদক সাইফুল ইসলাম মিটুল খাঁন এর প্রতিবাদ করলে দু’গ্রুপের মধ্যে হট্টগোল সৃষ্টি হয়। পরে পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে ঘটনাস্থলে আসেন স্থানীয় সংসদ সদস্য ডা. শিমুল।

তিনি কৃষকদের উদ্দেশ্যে বলেন- একজন কৃষকের কাছ হতে ৩ টনের বেশি গম সংগ্রহ করা যাবেনা, শিবগঞ্জ উপজেলার বাইরের কোন কৃষকের কাছ থেকে গম সংগ্রহ করা হবেনা। এছাড়া নষ্ট কিংবা পচা গম সংগ্রহ থেকে বিরত থাকার নির্দেশনা প্রদান করেন।

শিবগঞ্জ উপজেলা ছাত্র লীগের সভাপতি রিজভি আলম রানা অভিযোগ করে বলেন, সরকারি নিয়ম অনুযায়ী প্রকৃত কৃষকদের কাছ হতে পরিষ্কার গম সংগ্রহ করতে হবে।

কিন্তু নিয়ম নিতির তোয়াক্কা না করে একজন ব্যক্তির মাধ্যমে পচা ও দূর্গন্ধযুক্ত গম দেয়ার চেষ্টা করে। বিষয়টি জানতে পেরে ছাত্রলীগ ও যুব

স/অলীগের নেতা কর্মীরা বিক্ষোভ করে প্রতিবাদ জানায়।

এদিকে ছাত্র লীগ নেতা রিজভি আলম রানার অভিযোগ মিথ্যা দাবি করেন গম সরবরাহকারী সাইফুল ইসলাম মিটুল খাঁন বলেন,সরকারি নির্দেশনা অনুযায়ী গম সরবরাহ করা হয়েছে। উপজেলা চেয়ারম্যানের সমর্থকরা কোন কারন ছাড়াই বিক্ষোভ করে গম সরবরাহ বন্ধ করে দেয়।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে শিবগঞ্জ খাদ্য গুদামের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা রিয়াজুল হক জানান, ‘‘ইউএনও স্যারের পরামর্শে ৩ টন গম সংগ্রহ কার্যক্রমের উদ্বোধনের কিছুক্ষণ পর আপাতত গম সংগ্রহ কার্যক্রম বন্ধ রয়েছে। গম সংগ্রহে কোন অনিয়ম হয়নি।

চলতি মৌসুমে কৃষকদের কাছ থেকে ১ হাজার ১৭৭ টন গম ও ৫১৭ টন চাল সংগ্রহ কার্যক্রম চলবে ৩০ জুন পর্যন্ত।

প্রতি কেজি গমের মূল্য ধরা হয়েছে ২৮ টাকা। খাদ্য গুদামের বাইরে কিছু হট্টগোল সৃষ্টি হয়েছিল। তবে বর্তমানে পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে বলে জানিয়েছেন ওসিএলএসডি।

স/অ

Print