গোদাগাড়ীর পারিবারিক কবরস্থানে শায়িত হবেন ব্যারিস্টার আমিনুল হক

April 22, 2019 at 9:04 pm

নিজস্ব প্রতিবেদক:

বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান, সাবেক ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী ব্যারিস্টার আমিনুল হকের লাশ পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হবে। মঙ্গলবার বাদ আসর গোদাগাড়ীর আনিমা মজুদার পার্কে তাঁর পঞ্চম জানাযা নামাজ শেষে লাশ পারিবারিক কবরস্থান কেল্লা বারুইপাড়াতে দাফন করা হবে। ওই গ্রামেই বাড়ি ব্যারিস্ট্রার আমিনুল হকের। এর আগে বাদ জোহর তানোরে আমিনুল হকের চতুর্থ জানাযা নামাজে অনুষ্ঠিত হবে।

এর আগে রবিবার সকাল সাড়ে নয়টার দিকে ঢাকার ইউনাইটেড হাসপাতালে তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। আমিনুল হক কয়েক মাস ধরে ক্যান্সারে ভূগছিলেন।

এদিকে, আমিনুলের ভাগ্নে ব্যারিস্টার মাহফুজুর রহমান মিলন জানান, আমিনুল হক দীর্ঘদিন ধরে উচ্চ রক্তচাপ ও শ্বাসকষ্টসহ কয়েকটি জটিলরোগে আক্রান্ত ছিলেন। একাদশ সংসদ নির্বাচনের পর তিনি সিঙ্গাপুরের মাউন্ট এলিজাবেথ হাসপাতালে ভর্তি হন। তার অবস্থা সংকটাপন্ন হওয়ায় সেখান থেকে তাকে ফেরত পাঠানো হয়।

এরপর ১৮ এপ্রিল সকালে তাকে দেশে এনে ঢাকার ইউনাইটেড হাসাপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রবিবার সকালে তার মৃত্যু হয়।

তিনি আরও জানান, তার ছেলে খবর আমেরিকা থাকেন। তিনি আসার পরে ব্যারিস্টার আমিনুল হকের মরদেহ গ্রামের বাড়ি রাজশাহীর গোদাগাড়ীতে নিয়ে যাওয়া হবে। সেখানে মঙ্গলবার সকাল ১১টার সময় পারিবারিক গোরস্থানে তার দাফন সম্পন্ন করা হবে। 

বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান ব্যারিস্টার আমিনুল হক রাজশাহী-১ আসন (গোদাগাড়ী-তানোর) থেকে তিনবার সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। তিনি ১৯৯১ থেকে ১৯৯৬ এবং ২০০১ থেকে ২০০৬ সালে বিএনপি নেতৃত্বাধীন সরকারের সংসদ সদস্য ও মন্ত্রী ছিলেন। এর মধ্যে জোট সরকারের দুই মেয়াদের প্রথমে প্রতিমন্ত্রী এবং সর্বশেষ ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রণালয়ের পূর্ণাঙ্গ মন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করেন। একাদশ সংসদ নির্বাচনে তিনি এ আসনের আওয়ামী লীগ প্রার্থীর কাছে পরাজিত হন।

স/আর

Print