২০০ বছরে নির্মাণ, ৬৩ মিনিটে ছাই

April 17, 2019 at 9:54 am

সিল্কসিটিনিউজ ডেস্ক:

নটরডেম ক্যাথেড্রালের মতো অন্য কোনো নিদর্শন বা জায়গা ফ্রান্সের প্রতিনিধিত্ব করতে পারে না। জাতীয় প্রতীক হিসেবে নটরডেমের প্রতিদ্বন্দ্বী আইফেল টাওয়ার।

১২০০ শতক থেকে প্যারিসে দাঁড়িয়ে রয়েছে নটরডেম। এ ক্যাথেড্রালই দেশটির সাহিত্যে এক মাস্টারপিস এনে দিয়েছে। ভিক্টর হুগোর ‘দ্য হাঞ্চব্যাক অব নটরডেম’ ফরাসিদের কাছে নটরডেম ডি প্যারিস হিসেবে পরিচিতি এনে দিয়েছিল।

এ ক্যাথেড্রালটি সর্বশেষ বড় ধরনের ক্ষতির শিকার হয়েছিল ফরাসি বিপ্লবের সময়। তখন ধর্মবিরোধী উগ্রবাদীদের হামলায় বেশ কয়েকজন সেইন্টের ভাস্কর্য কেটে ফেলা হয়। দুটি বিশ্বযুদ্ধ সত্ত্বেও টিকে গেছে ভবনটি।

প্যারিসে বসবাসকারীরা যেসব জিনিস নিয়ে গর্ব করে থাকেন, এ ভবনটি তারই একটি। শুধু পর্যটকদের কাছেই আকর্ষণীয় নয়, বছরে এখানে অন্তত ২০০০ ধর্মীয় অনুষ্ঠান হয়ে থাকে। একটি জাতির অটলতার প্রতিমূর্তির এভাবে পুড়তে এবং চোখের সামনে মিনার ধসে যেতে দেখা যে কোনো ফরাসি নাগরিকের জন্য বিরাট এক ধাক্কা। প্রত্যক্ষদর্শী সামান্থা সিলভা বলেন, ‘আমার অনেক বন্ধুবান্ধব দেশের বাইরে থাকে এবং যখনই তারা আসে প্রতিবার আমি তাদের বলি নটরডেম বেড়িয়ে এস। অনেকবার আমি সেখানে গিয়েছি। কখনোই একরকম মনে হয়নি। এটা প্যারিসের সত্যিকারের প্রতীক।’

যে কারণে গুরুত্বপূর্ণ : প্যারিসে বহু অনন্য ভবন থাকা সত্ত্বেও সাড়ে ৮০০ বছরের পুরনো গথিক শৈলীর এ গির্জাটি কিছু নান্দনিক বৈশিষ্ট্যের কারণে বিশেষ আকর্ষণ হয়ে ছিল। বিবিসির প্রতিবেদন অনুযায়ী সেই বৈশিষ্ট্যগুলো তুলে ধরা হল।

রোজ উইন্ডো : গির্জাটিতে ত্রয়োদশ শতাব্দীতে তৈরি তিনটি রোজ উইন্ডো আছে। এর সবচেয়ে বিখ্যাত বৈশিষ্ট্যগুলোর মধ্যে এটি অন্যতম। এগুলোর কোনোটি আগুন থেকে রক্ষা পেয়েছে কিনা তা এখনও পরিষ্কার হয়নি। প্রথমটি ও সবচেয়ে ছোটটি আছে গির্জার পশ্চিম দিকের প্রবেশ পথের উপরে। ১২২৫ সালের দিকে এটি তৈরির কাজ শেষ হয়েছিল। দক্ষিণের রোজটির ব্যাস প্রায় ১৩ মিটার (৪৩ ফুট) এবং এটি ৮৪টি প্যানেলের সমন্ব^য়ে তৈরি।

দুই টাওয়ার : গির্জাটির পশ্চিম দিকের সামনের অংশে দুটি গথিক টাওয়ার রাজকীয় ভঙ্গিতে দাঁড়িয়ে আছে। ১২০০ শতাব্দীতে গির্জার পশ্চিম দিকের এ সম্মুখভাগটির নির্মাণ শুরু হয়েছিল। কিন্তু উত্তর দিকের প্রথম টাওয়ারটি নির্মাণ কাজ ৪০ বছরের আগে শেষ করা যায়নি। দক্ষিণের টাওয়ারটি ১২৫০ সালের মধ্যেই শেষ হয়। দুটি টাওয়ারই ৬৮ মিটার উঁচু। ৩৮৭টি সিঁড়ি টপকে উপরে উঠলে এখান থেকে প্যারিসের বিস্তৃত দৃশ্য দেখা যায়।

Print