রাজশাহীতে চলছে তামাকপণ্যের অবৈধ প্রচারণা কৌশল

এসিডির তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ

April 15, 2019 at 8:33 pm

নিজস্ব প্রতিবেদক:

ধূমপানে উৎসাহিত করতে পহেলা বৈশাখকে টার্গেট করে তামাকের বহুজাতিক কোম্পানী জাপান টোবাকো রাজশাহী মহানগরীর বিভিন্ন অলি-গলি ও মোড়ে-মোড়ে ডার্ট বোর্ড খেলার মাধ্যমে অভিনব প্রচার-প্রচারণা চালিয়েছে। ডার্ট বোর্ডে যারা খেলেছেন, জয়ী হলে তাদেরকে সিগারেটসহ দেয়া হচ্ছে বিভিন্ন ধরনের উপহার-সামগ্রী।
প্রকাশ্য দিবালোকে কোম্পানিটির এমন অবৈধ প্রচারণা বন্ধে প্রশাসনকে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেয়ার দাবি জানিয়েছে বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা এ্যাসোসিয়েশন ফর কম্যুনিটি ডেভেলপমেন্ট (এসিডি)।

প্রশাসনের চোখ ফাঁকি দিয়ে জাপান টোবাকোর কৌশলী এমন বিজ্ঞাপনের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদও জানিয়েছে সংস্থাটি।

গতকাল রবিবার রাজশাহী মহানগরীতে সরেজমিনে দেখা গেছে, মহানগরীর বিভিন্ন অলিগলি, রাস্তাঘাট, বাসস্ট্যান্ড, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়সহ বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে, রেললাইনের পাশেসহ যেখানে লোকসমাগম রয়েছে সেখানেই জাপান টোবাকো ইন্টারন্যাশনালের প্রতিনিধিরা অবৈধ প্রচারণা চালিয়েছে। বিভিন্ন তামাকপণ্যের দোকানে গিয়ে ক্রেতাদের স্টিকার, লিফলেট, আকর্ষণীয় লাইটারসহ বিভিন্ন সামগ্রী উপহার দেয় তারা। সিগারেটের প্রচারণা বৃদ্ধির জন্য অস্থায়ী ভিত্তিতে কর্মী নিয়োগ করে কোম্পানীটি এমন অবৈধ প্রচারণা চালাচ্ছে বলে জানা গেছে।

রবিবার নগরীর লক্ষ্মীপুর বাকির মোড় এলাকায় সরেজমিনে দেখা গেছে, ‘ঢাকা টোবাকো’ থেকে ‘জাপান টোবাকো’ নাম ধারণ করা এই বহুজাতিক সিগারেট কোম্পানীটি ‘ডার্ট বোর্ড’ (গোলক) খেলার আয়োজন করে। ‘ডার্ট বোর্ড’ খেলায় কোম্পানীটির প্রতিনিধিদের পক্ষ থেকে প্রতিযোগী নির্ধারণ করে দেয়া হচ্ছে। অংশগ্রহণকারীরা ডার্ট বোর্ডের বৃত্তের মধ্যে পিন লাগাতে পারলেই হচ্ছে ‘স্কোর’। যার ‘স্কোর’ সবচেয়ে বেশি তাদের বিবেচনায় সেই বিজয়ী। আর এই বিজয়ীদের হাতে তুলে দেয়া হচ্ছে কোম্পানী থেকে সরবরাহ করা বিভিন্ন পুরস্কার-প্রণোদনা ও উপহার (গামছা, মগ, ফ্রি সিগারেট প্যাকেট)।
অথচ ধূমপান ও তামাকজাত দ্রব্য (নিয়ন্ত্রণ) আইনে রয়েছে, প্রিন্ট বা ইলেক্ট্রনিক মিডিয়ায়, বাংলাদেশে প্রকাশিত কোনো বই, লিফলেট, হ্যান্ডবিল, পোস্টার, ছাপানো কাগজ, বিলবোর্ড বা সাইনবোর্ড বা অন্য কোনোভাবে তামাকজাত দ্রব্যের বিজ্ঞাপন প্রচার করা যাবে না। এছাড়া তামাকজাত দ্রব্য ক্রয়ে প্রলুব্ধকরণের উদ্দেশ্যে তামাকজাত দ্রব্যের নমুনা, বিনামূল্যে বা স্বল্পমূল্যে জনসাধারণকে প্রদান করা প্রদানের প্রস্তাব করা যাবে না। তামাকজাত দ্রব্যের বিজ্ঞাপন প্রচার বা এর ব্যবহার উৎসাহিত করার উদ্দেশ্যে কোন দান, পুরস্কার, বৃত্তি প্রদান বা কোনো অনুষ্ঠানের ব্যয়ভার বহন করা যাবে না। কোন ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠান এই আইন অমান্য করলে তার অনুর্ধ্ব তিন মাস বিনাশ্রম কারাদন্ড এবং অনধিক ১ লাখ টাকা জরিমানা করার বিধান রয়েছে।

তামাক নিয়ন্ত্রণ আইন সম্পর্কে তাদের কোনো ধারণা আছে কিনা জানতে চাইলে জাপান টোবাকোর ব্র্যান্ড এ্যাম্বাসেডর সাইফুল ইসলাম ও পলাশ জানান, তামাক নিয়ন্ত্রণ আইনের তেমন ধারনা নেই। সেখ সিগারেট আগে ঢাকা টোবাকো নামে চলতো। এখন থেকে এটা জাপান টোবাকো নামে চলবে। এই প্রচারণার জন্য এ ধরণের খেলার আয়োজন করা হয়েছে। এ ধরনের খেলা কিংবা পুরস্কার প্রদান সম্পর্কে তারা জানান, এটি অবশ্যই বিজ্ঞাপন, তবে তারা একমাসের নিয়োগ নিয়ে এই কাজ করছেন।

এবিষয়ে এসিডি’র তামাক নিয়ন্ত্রণ প্রকল্পের প্রোগ্রাম ম্যানেজার মো. শাহীনুর রহমান বলেন, ‘আমরা এসিডির পক্ষ থেকে জাপান টোবাকোর এমন অবৈধ বিজ্ঞাপন প্রচার ও পুরস্কার প্রনোদনা প্রদানের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি। সেই সঙ্গে রাজশাহীসহ সারাদেশে চলা জাপান টোবাকোর এমন কৌশলী বিজ্ঞাপন বন্ধে প্রশাসনের জরুরি হস্তক্ষেপসহ কোম্পানীটির বিরুদ্ধে তামাক নিয়ন্ত্রণ আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নিতে প্রশাসনকে অনুরোধ জানাচ্ছি।’

এ বিষয়ে রাজশাহী জেলা প্রশাসক (ডিসি) এসএম আব্দুল কাদের জানান, যদি কোনো কোম্পানী আইন ভঙ্গ করে কোনো প্রচারণা চালায় তাহলে অবশ্যই প্রশাসন ব্যবস্থা নেবে।

স/শা

Print