বাংলাদেশ কোনো ব্রিটিশ সন্ত্রাসীকে আশ্রয় দেবে না : গওহর রিজভী

February 21, 2019 at 11:51 am

সিল্কসিটিনিউজ ডেস্ক:

বাংলাদেশ কোনো ব্রিটিশ সন্ত্রাসীকে আশ্রয় দেবে না বলে জানিয়েছেন ব্রিটেনে সফররত বাংলাদেশ সরকারের প্রধানমন্ত্রীর আন্তর্জাতিকবিষয়ক উপদেষ্টা গওহর রিজভী। সাম্প্রতিক সময়ে ব্রিটিশ সংবাদ মাধ্যমের আলোচিত চরিত্র আইএস-বধূ শামীমা সম্পর্কে মন্তব্য করতে গিয়ে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীর আন্তর্জাতিকবিষয়ক উপদেষ্টা ড. গওহর রিজভী স্পষ্টভাষায় বলেছেন, বাংলাদেশ কোনো ব্রিটিশ সন্ত্রাসীকে আশ্রয় দেবে না।

বাংলাদেশের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এবং স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর বক্তব্যের সাথে সুর মিলিয়ে একই বক্তব্য দিলেন গওহর রিজভী। বুধবার লন্ডনভিত্তিক টিভি চ্যানেল ‘চ্যানেল এস’ এর জন্য ধারণকৃত এক সাক্ষাৎকারে তিনি এমন মন্তব্য করেন।

২০১৮ সালের ৩০ ডিসেম্বরের নির্বাচনের পর প্রথম বিদেশ সফরে যখন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যখন জার্মানি এবং আরব আমিরাত সফরে, ড. রিজভী তখন বিলেতে পরিবারের নতুন সদস্য নাতনির সাথে একান্তে সময় কাটানোর পাশাপাশি পালন করছেন আন্তর্জাতিক গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব।

সিরিয়ায় আইএস পতনের শেষ মুহূর্তে ব্রিটেনসহ আন্তর্জাতিক অঙ্গনে এখন সবচেয়ে আলোচিত চরিত্র আইএস-বধূ হিসেবে পরিচিত শামীমা বেগম। তাঁর ব্রিটেন ফিরে আসার ইচ্ছে এবং এই ইচ্ছেকে কেন্দ্র করে ব্রিটিশ নাগরিকত্ব বাতিল- এ বিষয়গুলো এখন ব্রিটিশ মিডিয়ার যেমন আলোচিত বিষয়, ঠিক তেমনি এই আলোচনায় বাংলাদেশের নামও ব্যাপক উচ্চারিত হচ্ছে এই কারণে যে, শামীমা বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত একজন তরুণী।

ব্রিটিশ মিডিয়া যখন শামীমা জ্বরে আক্রান্ত- এমনি একসময়ে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীর আন্তর্জাতিকবিষয়ক উপদেষ্টা ড. গওহর রিজভী বললেন, শামীমা ব্রিটিশ নাগরিক, তিনি বেড়ে উঠেছেন ব্রিটেনে। ব্রিটিশ সরকারকেই তার দায়িত্ব নিতে হবে। বাংলাদেশ কোনো ব্রিটিশ সন্ত্রাসীকে তার ভূখণ্ডে ঢুকতে দেবে না।

মা-বাবা বাংলাদেশের দ্বৈত নাগরিক হওয়ায় শামীমা বাংলাদেশের নাগরিকত্ব চাইতে পারে, ব্রিটিশ হোম সেক্রেটারি সাজিদ জাভিদ এর এমন ইঙ্গিত এর দিকে দৃষ্টি আকর্ষণ করলে ড. রিজভী বলেন, হোম সেক্রেটারি অনেক কিছুই এখন বলতে পারেন। শুধুমাত্র মা-বাবা অথবা পূর্বপুরুষ বাংলাদেশি- এ কারণে শামীমাও বাংলাদেশী, এমন মনে করার কোনো যুক্তি থাকতে পারে না। আমরা কেন ব্রিটেনের সন্ত্রাসীদের গ্রহণ করব? ব্রিটেন তাকে গ্রহণ না করলে সে রাষ্ট্রহীন হয়ে পড়বে। তখন আন্তর্জাতিক আইন অনুযায়ী ব্রিটেনকে ব্যবস্থা নিতে হবে।

ফারহান মাসুদ খানের উপস্থাপনায় চ্যানেল এস এর জনপ্রিয় অনুষ্ঠান ‘অভিমত’ এর জন্য রেকর্ডকৃত সাক্ষাৎকারে শামীমার বিষয় ছাড়াও আন্তর্জাতিক সন্ত্রাসবাদ মোকাবেলায় বাংলাদেশ প্রসঙ্গ, সৌদি আরবে বাংলাদেশের সেনা প্রেরণ, ভারত-বাংলাদেশ সম্পর্ক, মুক্তিযুদ্ধে ভূমিকা নিয়ে জামায়াতে ইসলামীর অন্তঃদ্বন্দ্ব, সাবেক প্রধান বিচারপতি এস কে সিনহার সাথে বিগত সরকারের দ্বন্দ্ব ও বিগত নির্বাচনসহ বিভিন্ন প্রসঙ্গ নিয়ে আলোচনা করেন তিনি।

টানা তৃতীয়বারের মতো বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীর আন্তর্জাতিকবিষয়ক উপদেষ্টার দায়িত্ব পালন করছেন অক্সফোর্ড এবং হাভার্ডের সাবেক অধ্যাপক ড. গওহর রিজভী।

Print