পুঠিয়ায় নৌকার সমর্থনে স্বতন্ত্র প্রার্থীর মনোনয়ন প্রত্যাহার, জাপা প্রার্থী নিখোঁজ

February 19, 2019 at 9:45 pm

পুঠিয়া প্রতিনিধি:
উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে রাজশাহীর পুঠিয়ায় প্রার্থীতা প্রত্যাহারের শেষ দিনে স্বতন্ত্র প্রার্থী মকলেসুর রহমান তার প্রার্থীতা প্রত্যাহার করে নিয়েছেন। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন পুঠিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ওলিউজ্জামান। আ.লীগ মনোনীত প্রার্থী বলছেন, স্বতন্ত্র প্রার্থী মকলেসুর রহমান নৌকাকে সমর্থন জানিয়ে তার প্রার্থীতা প্রত্যাহার করেছেন।

মকলেসুরের প্রার্থীতা প্রত্যাহারের ফলে এ উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বীতা করছেন আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থী জি এম হিরা বাচ্চু ও জাতীয় পার্টি মনোনীত প্রার্থী আনসার আলী। তবে মঙ্গলবার সকাল থেকেই আনসার আলীর কোন খোঁজ পাওয়া যাচ্ছে না বলে জানিয়েছেন তার পরিবার।

উপজেলা প্রশাসন সূত্রে জানা গেছে, তফসিল অনুযায়ী ১৯ ফেব্রুয়ারী মঙ্গলবার নির্বাচনে অংশগ্রহণকারী প্রার্থীদের প্রার্থীতা প্রত্যাহারের শেষ দিনে জেলা রিটার্নিং কর্মকর্তার কাছে নিজের প্রার্থীতা প্রত্যাহার করেন স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী মকলেসুর রহমান। তার প্রার্থীতা প্রত্যাহার করায় চেয়ারম্যান পদে আ.লীগ মনোনীত প্রার্থী ও জাতীয় পার্টি মনোনীত প্রার্থীর মধ্যে প্রতিদ্বন্দীতা হচ্ছে।
সুত্র মতে, চেয়ারম্যান পদে একজন প্রার্থী প্রার্থীতা প্রত্যাহার করলেও ভাইস-চেয়ারম্যান ও মহিলা ভাইস-চেয়ারম্যান পদে কোন প্রার্থী তাদের প্রার্থীতা প্রত্যাহার করেননি। নির্বাচনে ভাইস-চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বীতা করছেন দুইজন। তারা হলেন, জামাল উদ্দিন ও আবদুল মতিন মুকুল। এছাড়াও মহিলা ভাইস-চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বীতা করছেন ৪ জন। তারা হলেন, মতিয়া হক, আকলিমা খাতুন, মৌসুমি রহমান ও পরিজান বেগম।

এদিকে মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১০টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত খোঁজ পাওয়া যায়নি জাতীয় পার্টি মনোনিত প্রার্থী আনসার আলীর। তিনি পুঠিয়া পৌর জাতীয় পার্টির সভাপতি পদে রয়েছেন এবং উপজেলা নির্বাচনে জাতীয় পার্টির মনোনয়ন নিয়ে নির্বাচনে লাঙ্গল প্রতিকে প্রতিদ্বন্দ¦ীতা করছেন। আনসার আলীর স্ত্রী ও পুঠিয়া পৌরসভার সংরক্ষিত আসনের মহিলা কাউন্সিলর কহিনুর বেগম জানান, মঙ্গলবার সকালে রাজশাহীর উদ্দেশে বাড়ি থেকে বের হওয়ার পর থেকে তার কোন খোঁজ পাওয়া যাচ্ছে না। এমনকি তার ব্যবহৃত মুঠোফোনটিও বন্ধ পাওয়া যাচ্ছে। তিনি বলেন, গত সোমবার সকালে তিনি বাড়ি থেকে বের হয়ে সারারাত বাসায় ফিরেননি। পরের দিন মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে তিনি বাসায় ফিরলেও আমার সঙ্গে দেখা হয়নি। দুপুরে বাসায় ফিরে শুনেছি তিনি সকাল সাড়ে ১০টার দিকে বাসায় এসে রাজশাহীতে কাজ আছে বলে বাড়ি থেকে বের হন। তার মোবাইল ফোন নম্বরটিও বন্ধ পাওয়া যাচ্ছে বলেও জানান তিনি। তবে এ ব্যাপারে কোন আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হয়নি।
আ.লীগ মনোনীত প্রার্থী জি এম হিরা বচ্চু বলেন, বিকেলে স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী মকলেসুর রহমান আমাকে সমর্থন জানিয়ে তার প্রার্থীতা প্রত্যাহার করেছেন। তবে প্রতিদ্বন্দ্বী আনসার আলীর সঙ্গে তার সাক্ষাত হয়নি।

এ ব্যাপারে মকলেসুর রহমানের মুঠোফোনে বারবার যোগাযোগ করলেও তার নাম্বারটি বন্ধ পাওয়া যায়। জানতে চাইলে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সাকিল উদ্দিন আহম্মেদ বলেন, শুনেছি তিনি পালিয়েছেন। তবে এ ব্যাপারে থানায় কেউ অভিযোগ করেনি।

স/শা

Print