কর্ণফুলীতে বিরোধপূর্ণ জায়গায় লাশ দাফন নিয়ে তুলকালাম

February 11, 2019 at 7:06 pm

সিল্কসিটিনিউজ ডেস্ক:

কর্ণফুলীতে বিরোধপূর্ণ জায়গায় লাশ দাফন করতে গিয়ে দু’পক্ষে তুলকালাম কা- ঘটিয়েছে। উপজেলার শিকলবাহা ইউনিয়নের কলেজবাজার এলাকায় আজ সোমবার সকালে এ ঘটনা ঘটে।

স্থানীয় ও প্রত্যক্ষদর্শী সূত্র জানায়, সোমবার সকালে শাহ আলম নামের এক ব্যক্তিকে কবর দেওয়ার জন্য স্বজনেরা বাড়ির পাশে কবর খুড়তে শুরু করে। ওই সময় কর্ণফুলী থানায় গিয়ে লিখিত অভিযোগ করে তাঁর প্রতিপক্ষ মাহবুবুর রহমান। অভিযোগ পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে যায়। ওই সময় দু’পক্ষে তর্কাতর্কি  ও হাতাহাতি হলে দু’পক্ষে পাঁচজন সামান্য আহত হন।

থানা পুলিশ, কর্ণফুলী উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান দিদারুল ইসলাম চৌধুরী, ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর আলম ও শিকলবাহা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবদুল করিম ফোরকানসহ ব্যক্তিবর্গের সামনে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় এক পক্ষের জাহাঙ্গীর, মো. শফি, মো. হাসান, নুরুচ্ছফা ও মমতাজ বেগম ও আরেক পক্ষের রেজাউল করিম, টিপু ও ইলিয়াছসহ কয়েকজন আহত হয়।

শাহ আলমের পুত্র জাহাঙ্গীর আলম সাংবাদিকদের বলেন, আমাদের পারিবারিক জায়গায় কবর করতে গেলে মাহবুবুর রহমানের লোকজন হামলা করলে আমাদের কয়েকজন আহত হয়।

তবে, মাহবুবুর রহমান বলেন, আমাদের কেনা জায়গায় কবর দিতে গেলে আমরা পুলিশকে জানাই। এতে গণ্ডগোল লাগে।

শিকলবাহা ইউনিয়ন পরিষদের ৭ নং ওয়ার্ডের সদস্য মোহাম্মদ ওসমান বলেন, একটা লাশ নিয়ে এ ধরনের ঘটনায় আমরা বিব্রত।

এ ব্যাপারে শিকলবাহা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর আলম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ওই জায়গা ছিলো বিরোধপূর্ণ। তাই এ ঘটনা ঘটেছে। তবে লাশ দাফন করা হয়েছে।

কর্ণফুলী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আলমগীর মাহমুদ বলেন, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে যায়। লাশ দাফন হয়েছে। বর্তমানে পরিস্থিতি শান্ত।

Print