কোহলির ‘ষড়যন্ত্রে’ চাকরি ছাড়তে হয় কুম্বলেকে

December 12, 2018 at 10:48 pm

সিল্কসিটিনিউজ ডেস্ক:

গত বছরের জুনে হঠাৎ করেই ভারতীয় ক্রিকেট দলের কোচের পদ থেকে সরে দাঁড়ান অনিল কুম্বলে। ভারতীয় সাবেক এই অধিনায়কের বিদায়ের পর থেকেই গুঞ্জন রটে যায়,বিরাট কোহলির সঙ্গে বনিবনা না হওয়ায় চাকরি হারাতে হলো কুম্বলেকে।

ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ডের (বিসিসিআই) সেই বিতর্কিত ইস্যুটি নতুন করে আবারও সামনে আনলেন ডায়ানা এডুলজি। বিসিসিআই কমিটি অব অ্যাডমিনিস্ট্রেটরস (সিওএ) সদস্য এডুলজি সিওএর আরেক সদস্য বিনোন রাইকে মেইল পাঠান এডুলজি।

সেই মেইল বার্তায় এডুলজি লেখেন,‘রবি শাস্ত্রীকে কোচ করার জন্য নিয়ম ভেঙে নির্ধারিত সময়ের পরে আবেদন জমা নেওয়া হয়েছে। শুধু তাই নয়, কুম্বলের ব্যাপারে বিসিসিআইয়ের সিইও রাহুল জহুরিকে প্রতিনিয়ত মেইল করতেন কোহলি।’

ভারতীয় নারী ক্রিকেট দলের কোচের দায়িত্বে রয়েছেন রমেশ পাওয়ার। তাকে সরিয়ে দেয়ার জন্য বিসিসিআইয়ের কাছে সম্প্রতি মেইল করেছ্নে ওয়ানডে দলের অধিনায়ন মিতালী রাজ। তবে ভারতীয় নারী দলের অধিকাংশ ক্রিকেটার চাচ্ছেন রমেশ পাওয়ারই কোচ হিসেবে থাকুক।

এ প্রসঙ্গে ভারতীয় নারী ক্রিকেট দলের সাবেক অধিনায়ক এডুলজি বিনোদ রাইকে পাঠানো মেইলে লেখেন, ‘ক্রিকেট অ্যাডভাইজারি কমিটির বাছাই হওয়া সত্ত্বেও কুম্বলেকে মেনে নিতে পারেননি কোহলি। মহিলা ক্রিকেটাররা নিজেদের পছন্দের কোচের নাম ইমেইল করায় দোষের কিছু নেই। তারা অন্তত নিজেদের মতামত প্রকাশের বিষয়ে সত্য প্রকাশ করছে। বিরাট কোহলির মতো নয় যে, বারবার বিসিসিআইয়ের সিইওকে ইমেইল পাঠিয়ে গিয়েছে। যার ওপরে ভিত্তি করে দলে পরিবর্তন আনা হয়েছে।’

এডুলজি আরও বলেন, ‘পুরো ঘটনায় কুম্বলের ভাবমূর্তি নষ্ট হয়েছিল। তাকে ভিলেন বানিয়ে দেওয়া হয়েছিল। তিনি নিজের সম্মান বজায় রাখতেই শেষ পর্যন্ত সরে দাঁড়িয়েছিলেন। এই কারণে আমি এখনও ওকে শ্রদ্ধা করি। তাকে সরিয়ে শাস্ত্রীকে কোচ হিসেবে নিয়োগ দেয়ায় সেই সময়েই আমি প্রতিবাদ জানিয়েছিলাম।’

বিনোদ রাইকে পাঠানো এডুলজির সেই সেইল সম্প্রতি ফাঁস হয়ে যায়। আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ওয়েবসাইট ‘ক্রিকইনফোতে’ ফাঁস হওয়া ইমেল থেকে জানা যায় কুম্বলেকে কোচের পদ থেকে সরিয়ে দেয়ার জন্য বিরাট কোহলির সব সড়যন্ত্র।

অবশ্য কিংবদন্তি ক্রিকেটার অনিল কুম্বলের অধীনে ভারতীয় ক্রিকেট দল টেস্টে এক নম্বর র‌্যাংকিংয়ে উঠে আসে।

কুম্বলের বিদায়ের পর বিরাট কোহলির পছন্দ অনুসারে ফের কোচ হিসেবে নিয়োগ দেয়া হয় রবি শাস্ত্রীকে। তিনি এখনও ভারতীয় ক্রিকেট দলের কোচিংয়ের দায়িত্বে নিয়োজিত আছেন।

Print