হুয়াওয়ের বদলায় আইফোন নিষিদ্ধ

December 12, 2018 at 10:02 am

সিল্কসিটিনিউজ ডেস্ক:

সাময়িক যুদ্ধবিরতি চলছে যুক্তরাষ্ট্র ও চীনের মধ্যে। এর মধ্যেই ফের বাণিজ্য যুদ্ধ হল দুই অর্থনৈতিক পরাশক্তির মধ্যে। নিরাপত্তার অজুহাতে ওয়াশিংটনের চীনা কোম্পানি হুয়াওয়ের সব পণ্য নিষিদ্ধ করার পাল্টা আঘাত হিসেবে অ্যাপলের আইফোন নিষিদ্ধ করেছে বেইজিং।

আইফোনের বিরুদ্ধে চীনের আদালতে মামলা করে মার্কিন চিপ নির্মাতা প্রতিষ্ঠান কোয়ালকম। সেই মামলার প্রেক্ষিতে আইফোনের বেশিরভাগ মডেল আমদানি ও বিক্রির ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করে মঙ্গলবার রায় দেন আদালত।

তবে আইফোনের সর্বশেষ মডেল আইফোন টেনএস, আইফোন টেনএস প্লাস এবং আইফোন টেন আর এ নিষেধাজ্ঞার বাইরে রয়েছে। গত বছরের অক্টোবরে কোয়ালকমের মামলা দায়েরের সময় পর্যন্ত এই মডেলগুলো বাজারে আসেনি। মঙ্গলবার এ খবর জানিয়েছে সিএনএন বিজনেস।

হুয়াওয়ে ফোন নাগরিকদের ওপর গোয়েন্দাগিরি করছে এমন অভিযোগ এনে ২০১২ সাল থেকে এই কোম্পানির সব পণ্য নিষিদ্ধ করে যুক্তরাষ্ট্র। দেশটির এই পদক্ষেপ অনুসরণ করে হুয়াওয়েকে নিষিদ্ধ করে অস্ট্রেলিয়া, নিউজিল্যান্ড, কানাডা, যুক্তরাজ্য, জাপান, ভারত ও ইতালি।

হুয়াওয়ের বিরুদ্ধে এমন পদক্ষেপে এতদিন প্রতিশোধের আগুনে ফুঁসছিল চীনের কর্মকর্তারা। চলতি সপ্তাহে কানাডায় হুয়াওয়ের নির্বাহী প্রধান মেং ওয়াংঝুকে আটকের পর যুক্তরাষ্ট্রের হাতে তুলে দেয়ায় সেই ক্ষোভ বহুগুণে বৃদ্ধি পায়।

মেং ওয়াংঝুর আটকের পর কয়েকদিন না যেতেই প্রতিশোধ নিল বেইজিং। এর মধ্যেও সংকট সমাধানে মার্কিন বাণিজ্য কর্মকতাদের সঙ্গে আলোচনা যাচ্ছেন চীনা কর্মকর্তারা।

মঙ্গলবার মার্কিন অর্থমন্ত্রী স্টিভেন মনুচিন ও বাণিজ্য প্রতিনিধি রবার্ট লাইটাইজারের সঙ্গে ফোনে কথা বলেন চীনের শীর্ষ বাণিজ্য মধ্যস্থতাকারী উপপ্রধানমন্ত্রী লিউ হে। গত সপ্তাহে জি-২০ সম্মেলনে বাণিজ্য যুদ্ধের ইতি টানতে দুই দেশের একটি চুক্তি বাস্তবায়নের ব্যাপারে কথা বলেছেন তারা।

Print