সাপাহারে বসতবাড়ী নির্মাণকে কেন্দ্র করে হামলা, লুটপাট ৪ মহিলা আহত

July 11, 2016 at 11:09 pm

সাপাহার প্রতিনিধি:

নওগাঁর সাপাহার উপজেলার কলমুডাঙ্গা গ্রামে বিবাদমান সম্পত্তির উপরে বসতবাড়ী নির্মাণ করাকে কেন্দ্র করে দু’পক্ষের সংঘর্ষে ৪ জন মহিলা আহত ও ঘটনা স্থল হতে প্রচুর পরিমান ইট ও সিমেন্ট লুটের ঘটনা ঘটেছে।
জানা গেছে, কলমুডাঙ্গা গ্রামের (ভোসপাড়া) মৃত আমর উদ্দীনের দুই পুত্র তোফাজ্জল ও  আব্দুস সালামের মাঝে পৈত্রিক সূত্রে প্রাপ্ত ৫ শতক সম্পত্তি নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে দ্বন্দ চলে  আসছিল। সম্প্রতি ওই সম্পত্তিতে বড় ভাই তোফাজ্জলের পুত্র হুমায়ন একটি ইটের বাড়ি নির্মাণ করার প্রস্তুতি নিলে ছোট ভাই আঃ সালাম স্থানীয় থানায় অভিযোগ দাখিল করে। ঘটনার প্রেক্ষিতে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে বিবদমান ওই সম্পতিতে কোন নির্মাণ কাজ না করার জন্য উভয় পক্ষদ্বয়কে নোটিশ প্রদান করেন। পুলিশের নিশেধ উপেক্ষা করে ঘটনারদিন রোববার বিকেলে বড় ভাই তোফাজ্জলের পুত্র হুমায়ন নির্মান কাজ শুরু করলে আঃ সালামের লোকজন হুমায়নের নির্মানাধীন ওই বাড়ী ভেঙ্গে গুড়িয়ে দেন। এসময় উভয় পক্ষের মাঝে সৃষ্ট সংঘর্ষে তোফাজ্জল গ্রুপের রুমালী (৪০), নাজমা (১৬), ফরিদা (৪৫) ও রেবিনা (৩০) গুরুত্বর আহত হয়। সেসাথে সালাম গ্রুপের লোকজন ওই স্থান হতে ১৫ হাজার ইট ও ৫০ বস্তা সিমেন্ট লুটপাট করে নিয়ে যায় বলে তোফাজ্জলের বড় ছেলে হুমায়ন কবির অভিযোগ করেন এবং পুলিশের উপস্থিতিতে তাদের নির্মানাধীন বাড়ী ঘর ভেঙ্গে ফেলা হয়েছে বলেও জানান।
এ বিষয়ে দায়িত্ব প্রাপ্ত এস আই সুমন এর সাথে কথা হলে তিনি সিল্কসিটি নিউজকে জানান, বাড়ি-ঘর ভাংচুরের সময় তিনি ঘটনাস্থলে উপস্থিত ছিলেন না ভাংচুরের পরে তিনি ঘটনাস্থলে গিয়ে দু’পক্ষকে থানায় আসার জন্য নোটিশ প্রদান করেছেন।
অভিযুক্ত আব্দুস সালামের সাথে কথা হলে বাড়ি-ঘর ভাংচুরের বিষয়টি তিনি স্বীকার করে বলেন, পৈত্রিক সুত্রে প্রাপ্ত আমার ওই ৫ শতক জায়গায় জোর পূর্বক বসত বাড়ী নির্মাণ করায় আমি তা ভেঙ্গে দিয়েছি বলে জানান।

স/অ

Print