ভক্তের সঙ্গে বিয়ে

August 10, 2018 at 6:22 pm

সিল্কসিটিনিউজ ডেস্ক:

আপনার প্রিয় তারকা কে? এমন প্রশ্নের উত্তরে নিশ্চয়ই অনেক আবেগপ্রবণ হয়ে কারও নাম বলবেন আপনি। তারকাদের জন্য ভালোবাসা এমনই হয়। অনেকের ক্ষেত্রে পাগলামির পর্যায়ে চলে যায়। রীতিমতো হাবুডুবু খাওয়া যাকে বলে! আর তাই কোনো তারকাকে জীবনসঙ্গী হিসেবে পাওয়ার স্বপ্ন দেখাও ব্যতিক্রম নয়। অধিকাংশ ক্ষেত্রে স্বপ্ন সত্যি না হলেও, কিছু ভক্তের ভাগ্য আসলেই ঈর্ষা করার মতো। তেমনই কিছু ভক্তকে নিয়ে সাজানো হয়েছে এই ফিচার, যাঁদের বিয়ে হয়েছিল বলিউড তারকাদের সঙ্গে।

দিলীপ কুমার-সায়রা বানু
ছোটবেলা থেকেই বলিউডের সুপার স্টার দিলীপ কুমারের ভক্ত ছিলেন সায়রা বানু। দিলীপের হাসি, অভিনয়—সবকিছুই মুগ্ধ হয়ে দেখতেন তিনি। রীতিমতো দিবাস্বপ্ন দেখতেন সায়রা। মায়ের হাত ধরে মাত্র ১৬ বছর বয়সে অভিনয় শুরু করেন তিনি। দিলীপ কুমারের প্রতি দুর্বলতা কখনোই লুকিয়ে রাখেননি সায়রা বানু। পরিচালকদের অনুরোধ করতেন, দিলীপ কুমারের নায়িকা হওয়ার সুযোগ দেওয়ার জন্য। কিন্তু সায়রা বয়সে অনেক ছোট, তাই দিলীপ কুমার রাজি হতেন না। কিন্তু শেষমেশ ১৯৬৬ সালে নিজের থেকে ২২ বছরের ছোট এই নায়িকার সঙ্গে বিয়ের গাঁটছড়া বাঁধেন দিলীপ কুমার। তখন দিলীপ কুমারের বয়স ৪৪ আর সায়রার ২২।

ময়ূর মাধবনি ও মমতাজমমতাজ-ময়ূর মাধবনি
মমতাজের নজরকাড়া রূপের পাগল ছিলেন হাজারো ভক্ত। কিন্তু তাঁদের মধ্যে ময়ূর মাধবনিই একমাত্র সৌভাগ্যবান, যিনি বিয়ে করেছিলেন মমতাজকে। বড় ব্যবসায়ী ময়ূর মাধবনি মমতাজকে বিয়ে করেছেন ১৯৭৪ সালে। তখন সবাই বলেছিল যে শুধু রূপ দেখেই বিয়ে করছেন তিনি। কিন্তু মমতাজের যখন ক্যানসার ধরা পড়ে এবং চিকিৎসার কারণে মাথার চুল পড়ে যায়, তখনো মমতাজকে ভালোবেসে আগলে রেখে ভালোবাসার প্রমাণ দিয়েছেন ময়ূর।

জিতেন্দ্র ও শোভা কাপুরজিতেন্দ্র-শোভা কাপুর
নাচে পারদর্শিতা, অভিনয় এবং হাস্যোজ্জ্বল ব্যক্তিত্বের কারণে জিতেন্দ্রের নারী ভক্তের অভাব ছিল না। তেমনই একজন ভক্ত ছিলেন ব্রিটিশ এয়ারওয়েজের বিমানবালা শোভা। শোভার সঙ্গে জিতেন্দ্রের দেখা হয় এবং তাঁরা একে অপরের প্রেমে পড়েন। এরপর বিয়ে হয় ১৯৭৪ সালে। শোভা কাপুর ও জিতেন্দ্রের দুই সন্তান হলেন একতা কাপুর ও তুষার কাপুর।

রাজ কুন্দ্র ও শিল্পা শেঠিশিল্পা শেঠি-রাজ কুন্দ্র
সাধারণ মানুষ থেকে রিচার্ড গেরের মতো সেলিব্রিটি, সবাই শিল্পা শেঠির আকর্ষণীয় ফিগার আর মিষ্টি হাসির ভক্ত। ব্রিটিশ ইন্ডিয়ান ব্যবসায়ী রাজ কুন্দ্রও ছিলেন তেমনই একজন ভক্ত। তবে তিনি সুযোগ পেয়েছেন শিল্পার নামের সঙ্গে নিজের নাম জুড়ে দেওয়ার। ২০০৯ সালে রাজকীয় আয়োজনে তাঁদের বিয়ে হয়।

এশা দেওল ও ভারত তাখতানিএশা দেওল-ভারত তাখতানি
এশা দেওলকে খুব ভালো লাগত ভারত তাখতানির। তাঁরা তখন স্কুলের সহপাঠী ছিলেন। বড় হওয়ার পরে এশাকে পাওয়ার আশা ছেড়ে দিয়েছিলেন ভারত। কারণ, এশা বলিউডের নায়িকা আর ভারত ব্যবসায়ী। কিন্তু ভারতের স্বপ্ন সত্যি হয় শেষমেশ। ২০১২ সালে তাঁদের জমকালো বিয়ের অনুষ্ঠান হয়।

বিবেক ওবেরয় ও প্রিয়াঙ্কা আলভাবিবেক ওবেরয়-প্রিয়াঙ্কা আলভা
ব্যক্তি ও অভিনয়জীবনে বিবেক ওবেরয়কে নানা চড়াই-উতরাই পার হতে হয়েছে। তবে এই কঠিন সময়ে বিবেকের পাশে যে মানুষটি ছিলেন, তিনি হলেন কর্ণাটকের মন্ত্রীর মেয়ে প্রিয়াঙ্কা আলভা। বিবেকের বড় ভক্ত ছিলেন তিনি। তবে প্রেমের বিয়ে নয়, পরিবারের সম্মতিতে তাঁদের বিয়ে হয়েছে। কারণ, দুই পরিবারের মধ্যে খুব ভালো সম্পর্ক ছিল অনেক আগে থেকেই। ২০১০ সালে বিয়ে হয় তাঁদের।

Print