শ্রীলংকার হাথুরু ও চান্দিমালের ওপর আইসিসির নিষেধাজ্ঞা

July 16, 2018 at 5:58 pm

সিল্কসিটিনিউজ ডেস্ক:

বল টেম্পারিংয়ের অভিযোগে শ্রীলংকার অধিনায়ক দিনেশ চান্দিমাল ও কোচ হাথুরুসিংহেকে ছয় ম্যাচ নিষিদ্ধ করেছে বিশ্ব ক্রিকেটের নিয়ন্ত্রক সংস্থা আইসিসি। এছাড়াও টিম ম্যানেজার আসাঙ্কা গুরুসিংহের বিরুদ্ধে একই শাস্তির সিদ্ধান্ত নিয়েছে আইসিসি।

এ নিষেধাজ্ঞার ফলে আগামী চারটি ওয়ানডে ও দুটি টেস্ট ম্যাচে তারা অংশগ্রহণ করতে পারবেন না। ক্রিকেটে অনৈতিক দূর করতে তাদের বিরুদ্ধে এ নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়। খবর ইএসপিএন ক্রিকইনফো ও এএফপি।

সোমবার আইসিসির জুডিশিয়াল কমিশনার হন মাইকেল বেলফ অভিযুক্ত তিনজনের শাস্তির ঘোষণা করেন। তারা সবাই একই ধরণের শাস্তি পেয়েছেন। প্রত্যেকের নামের পাশে যোগ হয়েছে ৮টি সাসপেনশন পয়েন্ট, ৬টি ডিমেরিট পয়েন্ট। যার ফলে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে চলমান ২ ম্যাচের টেস্ট সিরিজ ও পরে ওয়ানডে সিরিজের প্রথম ৪ ম্যাচে তারা অংশগ্রহণ করতে পারবেন না।

এর আগে গত ১১ জুলাই তারিখে এই শাস্তির সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। আইসিসির কোড অব কন্ডাক কমিশন ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে এই শুনানির ব্যবস্থা করেছিল। যেখানে লেভেল ৩ এর অপরাধ এই তিন ক্রিকেট ব্যক্তিত্বকে শাস্তির আওতায় আনার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

আগামী দুই বছরের মধ্যে খুবই সতর্ক থাকতে হবে চান্দিমালকে। আর মাত্র দুটি ডিমেরিট পয়েন্ট পেলে তিনি পরবর্তীতে আরও তিন টেস্ট বা ছয় ওয়ানডে/টি-টোয়েন্টি ম্যাচের জন্য নিষিদ্ধ হবেন তিনি। এবারের ৬ ডিমেরিটসহ মোট ১০টি ডিমেরিট রয়েছে চান্দিমালের নামের পাশে।

প্রসঙ্গত, গত মাসে সেন্ট লুসিয়ায় ক্যারিবীয় সফরে তৃতীয় দিনের খেলা শুরুর ১০ মিনিট আগে চান্ডিমালের বিরুদ্ধে বল টেম্পারিংয়ের অভিযোগ আনেন আম্পায়াররা। আচমকা এমন অভিযোগ শুনে ক্রিকেটাররা প্রতিবাদে মাঠে যেতেও অস্বীকৃতি জানায়।

তাৎক্ষণিক পরিস্থিতি সামলে কিছুক্ষণ পর খেলতে রাজি হয়ে যায় লঙ্কান দল। তারা ভেবেছিল ৫ রান পেনাল্টি আর আগের দিনের পুরনো বলে খেলাটি মাঠে গড়াবে। কিন্তু টেম্পারিংয়ের ভয়াবহ অভিযোগে আম্পায়াররা পুরনো পথে আর চলেননি।

নতুন বলে তারা যখন খেলা শুরুর সিদ্ধান্ত নেন তখন আবার বেঁকে বসে লঙ্কানরা। তারা মাঠে যেতে দেরি করে আরও ৪০ মিনিট। নানা নাটকীয়তার জন্ম দেওয়ায় অভিযুক্ত ছিলেন লংকান দলের হেড কোচ হাথুরুসিংহেসহ অধিনায়ক চান্দিমাল ও দলের ম্যানেজার।

Print