রাজশাহীতে ভূয়া পুলিশের এএসআইসহ গ্রেফতার ৩

July 4, 2018 at 9:33 pm

নিজস্ব প্রতিবেদক:
রাজশাহী মহানগরীর কাঠালবাড়িয়া মোড় এলাকা থেকে পুলিশের এক ভুয়া এএসআইসহ ৩জনকে আটক করেছে পুলিশ। আজ বুধবার বিকেলে আটককৃতদের প্রতারণা মামলায় গ্রেফতার দেখিয়ে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। এর আগে গতকাল মঙ্গলবার রাতে তাদের কাঠালবাড়িয়া মোড় এলাকা থেকে আটক করা হয়।

গ্রেফতারকৃতরা হলেন, নগরীর কাঠালবাড়িয়া এলাকার হাসান বাকী আব্দুল্লাহ’র ছেলে আব্দুল্লাহ জুনায়েদ (১৯), গুড়িপাড়া এলাকার আব্দুল রাজ্জাকের ছেলে রকি (৩০) ও মালদা কলোনী এলাকার আব্দুল মালেক (৩০)।

পুলিশ ও এজাহার সূত্রে জানা গেছে, নগরীর মালদা কলোনী এলাকার মালেকের সাথে গুড়িপাড়া এলাকার জৈনক এক নারী’র বিবাহ বিচ্ছেদ ঘটে। গত সোমবার দুপুরে জুনায়েদ একটি মোটর সাইকেল যোগে গুড়িপাড়া এলাকায় ওই নারীর বাসায় যায়। সেখানে গিয়ে সে নিজেকে কাশিয়াডাঙ্গা থানার এএসআই নাজমুল পরিচয় দিয়ে ওই নারীর নামে থানায় একটা অভিযোগ দেয়া হয়েছে বলে জানায়। তাকে আজকের মধ্যেই গ্রেফতার করা হবে বলে চলে যায় সে। পরে মোবাইল ফোনে ওই নারীর কাছে ১০ হাজার টাকা দাবি করে ভুয়া পুলিশের এএসআই নাজমুল। টাকা না দিলে আজকের মধ্যেই গ্রেফতার করা হবে বলে হুমকিও দেয় নাজমুল। বিষয়টি জানতে ওই নারী তার মাকে নিয়ে কাশিয়াডাঙ্গা থানার ওসি’র কাছে যায়। থানার কোন পুলিশ সদস্য এ কাজের সাথে জড়িত না থাকার বিষয়টি নিশ্চিত হয়ে তিনি তাদের গ্রেফতারের নির্দেশ দেয়।

থানার সেকেন্ড অফিসার এসআই মোহাম্মদ আলী কৌশলে আজ দুপুরে তাদের কাঠালবাড়িয়া মোড় থেকে মোটরসাইকেলসহ ভুয়া পুলিশের এএসআই ও তার সহযোগীকে থানায় গ্রেফতার করে নিয়ে আসে। পরে তাদের দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে ওই নারীর পূর্বের স্বামী মালেককেও গ্রেফতার করা হয়। পরে তাদের আজ বিকেলে প্রতারণা ও চাঁদাবাজির একটি মামলায় গ্রেফতার দেখিয়ে আদালতের মাধ্যমে আদালতে পাঠানো হয়।

এ বিষয়ে কাশিয়াডাঙ্গা থানার অফিসার ইনচার্জ রবিউল ইসলাম জানান, পুলিশ পরিচয়ে চাঁদাবাজির অভিযোগে মঙ্গলবার রাতে তাদের কাঠালবাড়িয়া মোড় থেকে আটক করে থানায় নিয়ে আসা হয়। পরে তাদের দেয়া তথ্যানুযায়ী মালদা কলোনী থেকে আরেকজনকে আটক করা হয়। পরে আজ বিকেলে তাদের ওই মামলায় গ্রেফতার দেখিয়ে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

স/শা

Print