বিআরটিসির অগ্রিম টিকিট বিক্রি শুরু

June 5, 2018 at 1:24 pm

সিল্কসিটিনিউজ ডেস্ক:

আসন্ন ঈদুল ফিতর উপলক্ষে ঘরমুখো মানুষের সহজ ও আরামদায়ক যাত্রা নিশ্চিতের লক্ষ্যে দশ স্থান থেকে ঈদের অগ্রিম টিকিট বিক্রি শুরু করেছে বাংলাদেশ রোড ট্রান্সপোর্ট করপোরেশন (বিআরটিসি)।

মঙ্গলবার সকাল থেকে একযোগে এসব জায়গায় টিকিট বিক্রি হচ্ছে। স্থান দশটি হচ্ছে-রাজধানীর মতিঝিল, জোয়ার সাহারা, কল্যাণপুর, মোহাম্মদপুর, গাবতলী, মিরপুর, গাজীপুর, নারায়ণগঞ্জ, নরসিংদী বাস ডিপো ও ঢাকা ফুলবাড়িয়ার সিবিএস-২।

আজ টিকিট বিক্রির প্রথম দিনে ঈদ স্পেশাল সার্ভিসের ১৩ জুনের টিকেট বিক্রি করা হচ্ছে।

এবার স্পেশাল সার্ভিসে থাকছে ৯০৪টি বাস। এর মধ্যে ঢাকা মহানগরীর ৬টি বাস ডিপোসহ গাজীপুর ও নারায়ণগঞ্জের ৮টি ডিপো থেকে মোট ৪৭৫টি বাস প্রতিদিন বিভিন্ন গন্তেব্যের উদ্দেশ্যে ছাড়বে। দেশের অন্যান্য অঞ্চলের ১১টি ডিপো থেকে আন্তঃজেলার মধ্যে ৩৭৫টি বাস চলাচল করবে। এ ছাড়া জরুরি প্রয়োজন মেটাতে ঢাকার বিভিন্ন স্থানে ৫৪টি বাস স্ট্যান্ডবাই থাকবে।

মতিঝিল ডিপোর নিয়ন্ত্রণে ঢাকা-নাগরপুর, দাউদকান্দি, বাজিতপুর, খুলনা, দিনাজপুর, নেত্রকোনা রুট। কল্যাণপুর ডিপোর নিয়ন্ত্রণে রংপুর, পঞ্চগড়, কুড়িগ্রাম, গাইবান্দা, কুষ্টিয়া, রাজশাহী, নওগাঁ, শেরপুর, জামালপুর, নেত্রকোনা, নাগরপুর, গোবিন্দগঞ্জ, রানীসংকর, ঠাকুরগাঁও, দিনাজপুর রুট।

গাবতলী ডিপোর নিয়ন্ত্রণে রংপুর, দিনাজপুর, ঠাকুরগাঁও রুট। জোয়ার সাহারা ডিপোর নিয়ন্ত্রণে বিশ্বরোড-পাঁচদোনা, রংপুর, নওগাঁ, জয়পুরহাট, টাঙ্গাইল, ময়মনসিংহ ও বগুড়া রুট। মিরপুর ডিপোর নিয়ন্ত্রণে রংপুর, কুষ্টিয়া, কুড়িগ্রাম, দিনাজপুর ও নওগাঁ রুট এবং মোহাম্মদপুর ডিপোর নিয়ন্ত্রণে রংপুর রুট।

এ ছাড়া গাজীপুর ডিপোর নিয়ন্ত্রণে বিশ্বরোড-পাঁচদোনা, কিশোরগঞ্জ, টাঙ্গাইল, জামালপুর, নেত্রকোনা, ময়মনসিংহ, রংপুর, দিনাজপুর, ঠাকুরগাঁও রুট। নারায়ণগঞ্জ ডিপোর নিয়ন্ত্রণে ঢাকা-মাওয়া, ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ, ঢাকা-মেঘনা উপজেলা, বিশ্বরোড-পাঁচদোনা রুট। কুমিল্লা ডিপোর নিয়ন্ত্রণে ঢাকা-গৌরিপুর, ঢাকা-কুমিল্লা-বরুরা রুট এবং নরসিংদী ডিপোর নিয়ন্ত্রণে ঢাকা-নরসিংদী, ঢাকা-ভৈরব রুটে যাত্রীরা বিআরটিসির ঈদ স্পেশাল সার্ভিসের সেবা গ্রহণ করতে পারছেন।

এদিকে বিআরটিসি সূত্র জানিয়েছে, ঈদের দুই দিন আগে থেকে ঢাকা মহানগরীর বিআরটিসির ৬ ডিপো ও গাজীপুর-নারায়ণগঞ্জের ৮ ডিপো থেকে উত্তরবঙ্গগামীসহ বিভিন্ন গন্তব্যের কারখানা শ্রমিকদের পরিবহন সেবা দেওয়া হবে।

Print