যাদু-টোনা করার অভিযোগে কবিরাজের বিরুদ্ধে থানায় মামলা

February 12, 2018 at 10:39 pm

মোহনপুর প্রতিনিধিঃ
রাজশাহীর মোহনপুর উপজেলা রায়ঘাটি ইউনিয়নের খোলাগাছি গ্রামের এক কবিরাজের বিরুদ্ধে যাদু টোনা করার অভিযোগ উঠেছে।

ওই কবিরাজের বিরুদ্ধে খোলাগাছি গ্রামের মৃত লোটারু সরদার এর ছেলে কায়েস সরদার বাদী হয়ে এনায়েত আলী কবিরাজ ও তার ছেলে একরামুল হক (৩৮) জাহাঙ্গীর হোসেন (৩৩) আলমগীর হোসেন(৩১)কে আসামী করে মোহনপুর থানায় মামলা দায়ের করা হয়।

স্থানীয় ও মামলা সূত্রে জানাগেছে, পৈত্রিক সূত্রে জমি-জমা, সামাজিক বিষয়এর জের ধরে পূর্ব পরিকল্পিত ভাবে গত ২৫ ডিসেম্বর ২০১৭ আনুমানিক সকাল ১০টায় বাদী কায়েস আলী সরদারের এর বাড়ীতে কবিরাজ এনায়েত আলীসহ তাঁর ছেলেরা গিয়ে তাদের বিরোধ নিস্পত্তি কথা বলে ৫০ হাজার টাকা দাবী করেন। দাবীকৃত টাকা দিতে অস্বীকৃতি জানালে কবিরাজ এনায়ের আলী সরদার তাঁর ছেলে ফিরোজ হোসেনসহ পরিবারে অন্যান্য সদস্যদের যাদু টোনা করিবে বলে ভয়ভীতি ও হুমকি প্রদর্শন করে।

হুমকির পরের দিন কবিরাজের কথা অনুসারে বাদী ছেলে ফিরোজ হোসেন (১৫) অসুস্থ হয়ে পড়ে। তখন কায়েস আলী তার ছেলেকে রাজশাহীসহ বিভিন্ন জায়গায় ডাক্তার কাছে চিকিৎসার জন্য দেখালে তাদের কোন চিকিৎসা দিয়ে সুস্থ হয় না ফিরোজ।

বাদী কায়েস আলী সরদার জানান, অসুস্থ ছেলে ফিরোজ হোসেন সুস্থ্য করার জন্য কবিরাজ এনায়েত আলী সরদার বাদীকে বলে তুই দুনিয়ার সব ডাক্তার কবিরাজ কাছে গেলেও তোর ছেলে ঠিক হবে না ভালো করতে হলে আমাকে ৫০ হাজার টাকা দিতে হবে তাহলে আমি ভাল কবে দিব। ইতিপূর্বে আমার ছেলে অসুস্থ হলে ওই কবিরাজকে টাকা দিলে ভালো করে দিত।

ওই গ্রামে ভুক্তভোগী আসমা বেগম(৪০) জানান, ইতিপূর্বে এনায়েত আলী কবিরাজ আমাকেও যাদু-টোনা করিছিল অনেক অর্থের বিনিময়ে আমাকে তাবিজ বানিয়ে দিয়ে ভালো করেন।

তিনি আরো বলেন তাানিয়া খাতুন(১২) জামিনুল(১৫)কে দুই বছর ধরে বোবা করে রেখেছেন শুধু ওই কবিরাজ জন্য তাদের ১০ বিঘা জমি বিক্রি করতে হয়েছে বলে তিনি জানান। তার বিরুদ্ধে কেউ মুখ খুললে তিনি তাদেরকে যাদু টোনার ভয়ভীর্তি দেখায়।

মোহনপুর থানায় অফিসার ইনর্চাজ(ওসি) এসএম আবুল কাশেম আজাদ জানান, গ্রেফতারকৃত আসামী জাহাঙ্গীর হোসেন আদালতের মাধ্যমে জেল-হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে। পলাতক আসামীদের গ্রেফতারে পুলিশি অভিযান অব্যহত রয়েছে।

স/অ

Print