৯৭ ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানকে সম্মাননা দিলো রেড ক্রিসেন্ট

সিল্কসিটিনিউজ ডেস্কঃ

মানুষের জীবন বাঁচাতে স্বেচ্ছায় রক্তদান এবং রক্তদানে অগ্রণী ভূমিকা রাখা দেশের ৭২ ব্যক্তি এবং ২৫ প্রতিষ্ঠানকে সম্মাননা দিয়েছে বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি।

বিশ্ব রক্তদাতা দিবস উপলক্ষে মঙ্গলবার (১৪ জুন) বিকেলে রাজধানীর হলি ফ্যামিলি রেড ক্রিসেন্ট মেডিকেল কলেজ অডিটোরিয়ামে এক অনুষ্ঠানে এসব ব্যক্তি-প্রতিষ্ঠানকে সম্মাননা স্মারক ও সনদ দেওয়া হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে সম্মাননা স্মারক ও সনদ তুলে দেন বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির বোর্ড সদস্য ডা. রোকেয়া সুলতানা।

এ বছর পাঁচটি ক্যাটাগরিতে এ সম্মাননা দেওয়া হয়ে। এর মধ্যে ব্যক্তি পর্যায়ে বিশেষ ক্যাটাগরিতে সম্মাননা পেয়েছেন বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল (অব.) এটিএম আবদুল ওয়াহ্হাব। প্রতিষ্ঠান পর্যায়ে এসওএস শিশুপল্লি, নটরডেম কলেজ, বাংলাদেশ রপ্তানি প্রক্রিয়াকরণ অঞ্চল কর্তৃপক্ষ (বেপজা), ঢাকা কমার্স কলেজ, শান্তা মারিয়াম বিশ্ববিদ্যালয়, ব্যাংক এশিয়া, রেড ক্রিসেন্ট ঢাকা জেলা, ঢাকা সিটি, টাঙ্গাইল, মুন্সিগঞ্জ ও নারায়ণগঞ্জ ইউনিটসহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানকে এ সম্মাননা দেওয়া হয়।

সম্মাননা প্রদান অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির বোর্ড সদস্য মো. আতিকুল হক শামীম ও মহাসচিব কাজী শফিকুল আযম।

অনুষ্ঠানে ডা. রোকেয়া সুলতানা বলেন, একজন সুস্থ মানুষ চার মাস পর পর রক্ত দিতে পারেন। রক্ত দেওয়ার মাধ্যমে তিনি সবাইকে মুমূর্ষু ব্যক্তিদের সাহায্যে এগিয়ে আসার আহ্বান জানান।

কাজী শফিকুল আযম বলেন, প্রতি বছর দুই লাখ ব্যাগ রক্ত সরবরাহের সক্ষমতা রয়েছে বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির, যা দেশের মোট রক্তের চাহিদার ১১ শতাংশ। রক্ত দিতে সাধারণ মানুষকে উৎসাহিত করার মাধ্যমে এ হার আমরা ২৫ শতাংশে উন্নীত করতে চাই।

যারা স্বেচ্ছায় ও বিনামূল্যে রক্ত দিয়ে লাখ লাখ মানুষের মানুষের প্রাণ বাঁচাচ্ছেন তাদেরসহ সাধারণ মানুষকে রক্তদানে উৎসাহিত করাই এ সম্মাননার উদ্দেশ্য বলে জানান সোসাইটির ব্লাড প্রোগ্রাম বিভাগের পরিচালক ইমাম জাফর সিকদার।

ব্লাড বিভাগের উদ্যোগে আয়োজিত অনুষ্ঠানে আলোচনা পর্বে আরও অংশ নেন হলি ফ্যামিলি রেড ক্রিসেন্ট মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ ডা. দৌলতুজ্জামান, আইএফআরসির কোভিড-১৯ প্রোগ্রামের ব্যবস্থাপক আলী আকগুল ও রেড ক্রিসেন্টের জাতীয় ইয়ুথ কমিশনের প্রধান ইফতেখার হোসেন ইমু প্রমুখ।

“রক্তদান সংঘবদ্ধতারই প্রকাশ, এ কাজে যুক্ত হোন, জীবন বাঁচান”- প্রতিপাদ্যে এ বছর সারা বিশ্বে রক্তদাতা দিবস পালিত হচ্ছে।

 

সুত্রঃ জাগো নিউজ