বৃহস্পতিবার , ২৬ জানুয়ারি ২০২৩ | ১১ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
  1. অন্যান্য
  2. অপরাধ ও দুর্নীতি
  3. অর্থ ও বাণিজ্য
  4. আইন আদালত
  5. আন্তর্জাতিক
  6. কৃষি
  7. খেলা
  8. চাকরীর খবর
  9. ছবিঘর
  10. জাতীয়
  11. তথ্যপ্রযুক্তি
  12. দুর্ঘটনা
  13. ধর্ম
  14. নারী
  15. নির্বাচিত খবর

৩০০ রোবোটিকস ক্লাব তৈরি করছি: পলক

নিউজ ডেস্ক
জানুয়ারি ২৬, ২০২৩ ৮:৫৪ অপরাহ্ণ

সিল্কসিটি নিউজ ডেস্ক:

কুমিল্লা জেলা প্রশাসকের এক প্রস্তাবের কথা উল্লেখ করে তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেছেন, চতুর্থ শিল্প বিপ্লবকে সামনে রেখে আমাদের তরুণ-তরুণী ও শিক্ষার্থীদের নিয়ে রোবটিকস ক্লাব তৈরি করার লক্ষ্যে আমরা ৩০০টি সংসদীয় আসনভিত্তিক ৩০০টি স্কুলে রোবোটিকস ফেব্রিকেশন ল্যাব ও ক্লাব গঠন করছি। বৃহস্পতিবার রাজধানীর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে জেলা প্রশাসক (ডিসি) সম্মেলন শেষে সাংবাদিকদের তিনি এসব কথা বলেন। আমাদের যে ১৩ হাজার শেখ রাসেল ডিজিটাল ল্যাব আছে সেখানেও আমরা রোবোটিকস ক্লাব তৈরি করব।’

তিনি বলেন, আমাদের মাঠ প্রশাসন সরকারের কার্যক্রম বাস্তবায়নে মুখ্য ভূমিকা পালন করে থাকে, তার জন্য আমাদের সরকারের পক্ষ থেকে কিছু নির্দেশনা দিয়েছি এবং জেলা প্রশাসকদের কাছ থেকেও আমরা কিছু প্রশ্ন পেয়েছি।

প্রধানমন্ত্রীর ২০৪১ সালের ভিশনে স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মাণে যে ৪টি স্তম্ভ আছে সেই লক্ষ্যে জেলা প্রশাসকদের কাজ করায় উৎসাহিত করে প্রতিমন্ত্রী বলেন, ডিজিটাল বাংলাদেশের সাফল্যের ওপর ভিত্তি করে স্মার্ট সিটিজেন, স্মার্ট ইকোনমি, স্মার্ট সরকার ও স্মার্ট সোসাইটি গড়ে তোলার জন্য আমরা জেলা প্রশাসকদের কিছু মৌলিক নির্দেশনা দিয়েছি। পেপারলেস অফিস ওয়ার্ককে উৎসাহিত করা। ক্যাশলেস সোসাইটি তৈরি করার পাশাপাশি স্মার্ট বাংলাদেশ গড়তে তাদের একযোগে কাজ করতে হবে।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, এ বছর আইসিটি ডিভিশন থেকে আমরা স্মার্ট জেলা ইনোভেশন চ্যালেঞ্জ ঘোষণা করেছি; যাতে একটি জেলার জেলা প্রশাসকের নেতৃত্বে সর্বোচ্চ এক কোটি টাকার একটি পুরস্কার ঘোষণা করেছি। যাতে একটি প্রতিযোগিতা বিরাজ করে। কিভাবে তারা উদ্ভাবনী স্মার্ট জেলা, পেপারলেস অফিস ওয়ার্ক ও ক্যাশলেস জেলা তারা তৈরি করতে পারে।

প্রতিমন্ত্রী দুইটি গুরুত্বপূর্ণ প্রস্তাবের কথা উল্লেখ করে বলেন, আমাদের সোশ্যাল মিডিয়ায় ব্যবহারকারী প্রায় ৫ থেকে ৬ কোটি এবং ১৩ কোটি ইন্টারনেট ব্যবহারকারীদের সাইবার জগৎটাকে নিরাপদ রাখার জন্য ডিজিটাল লিটারেসির গুরুত্ব অনেক। এজন্য ছাত্র, শিক্ষক, সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারী, পুলিশ সবাইকে নিয়ে প্রতি মাসে আইসিটির যে কমিটি আছে তাদের নিয়ে জেলা ও উপজেলায় বৈঠক করার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

তিনি বলেন, প্রত্যেকটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ডিজিটাল লিটারেসি, সাইবার সিকিউরিটি ও সোশ্যাল মিডিয়া ম্যানেজমেন্ট সম্পর্কে সচেতনতা বৃদ্ধিতে তারা যেন যথাযথ উদ্যোগ গ্রহণ করে সেদিকেও নজর দিতে হবে।

সূত্র: যুগান্তর

সর্বশেষ - রাজশাহীর খবর