সেই শিক্ষিকার স্থায়ী বহিষ্কারের অন্দোলনে শিক্ষার্থীর বিষপান

সিরাজগঞ্জের রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীদের মাথার চুল কেটে দেওয়ার ঘটনায় অভিযুক্ত শিক্ষিকা ফারহানা ইয়াসমিনের স্থায়ী বহিষ্কারের দাবি আমরণ অনশন করছেন শিক্ষার্থীরা। শুক্রবার (২২ অক্টোবর) রাত থেকে দ্বিতীয় দফায় অনশুন শুরু করে তারা।

আজ রবিবার (২৪ অক্টোবর) দুপুর সাড়ে ১২টা দিকে অনশন থেকেই বক্তব্য দেওয়ার সময় প্রকাশ্যে বিষপান করে আত্মহত্যার চেষ্টা করেছেন শামীম নামে এক শিক্ষার্থী। তিনি সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য ও বাংলাদেশ অধ্যয়ন বিভাগের শিক্ষার্থী। অপরদিকে আবিদ হাসান নামে অপর এক শিক্ষার্থী হাতের রগ কেটে আত্মহত্যার চেষ্টা করেন।

আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের আন্দোলন থেকে সরে আসার আহ্বান জানাতে রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার সোহরাব আলীসহ শিক্ষকদের একদল প্রতিনিধির উপস্থিতিতে এ ঘটনা ঘটে।

বিষপানে অসুস্থ শামীমকে প্রথমে স্থানীয় একটি বেসরকারি ক্লিনিকে ভর্তি করার পর তার অবস্থার অবনতি হলে শাহজাদপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। এখানে তিনি চিকিৎসাধীন রয়েছেন। অপর ছাত্র আবিদ হাসানকে প্রাথমিক চিকিৎসার পর তাকে ছেড়ে দেওয়া হয়।

এ খবর ছড়িয়ে পড়লে রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা নগরবাড়ী-ঢাকা মহাসড়ক বেলা সাড়ে ১২টা থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত অবরোধ করে। এ সময় সড়কের দুই পাশে দীর্ঘ যানজটের সৃষ্টি হয়।

রবির রেজিস্ট্রার সোহরাব আলী জানান, শিক্ষার্থীদের অসহায় অবস্থা এবং অনশনরতদের দুর্ভোগ দেখতে এদিন (রবিবার) একাডেমিক ভবনে যাই। এ সময় আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের নিবৃত্ত করতে আমি ও আমার সহকর্মী শিক্ষকরা চেষ্টা করে ব্যর্থ হই। তারা অভিযুক্ত শিক্ষক ফারহানার স্থায়ী অব্যাহতি ছাড়া আর কোন কথাই শুনতে রাজি হয়নি।

ভিসি আব্দুল লতিফ জানান, ফারহানা ইয়াসমিনকে স্থায়ী অব্যাহতির ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেওয়ার জন্য আরো একটু সময় নেন সিন্ডিকেট সদস্যরা। এজন্যই সিন্ডিকেটের এ সভা স্থগিত করা হয়। রবির ভিসি আরও বলেন, খুব শিগগিরই সিন্ডিকেট সভা আহ্বান করে বিষয়টির সুরাহা করা হবে।

 

সূত্রঃ কালের কণ্ঠ