সুশান্তের মৃত্যু: এবার প্রকাশ্যেই মুখ খুললেন অঙ্কিতা

সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুর ঘটনায় এবার প্রকাশ্যেই মুখ খুললেন তার সাবেক বান্ধবী অঙ্কিতা লোখান্ডে। একটি টিভির লাইভ অনুষ্ঠানে প্রথমবার মুখ খোলেন অঙ্কিতা। সাফ জানান, সুশান্ত কখনওই মানসিক অবসাদগ্রস্ত ছিলেন না।

অঙ্কিতাকে প্রকাশ্যেই বলতে শোনা যায়, ‘সুশান্তকে যেভাবে বারবার মানসিক অবসাদগ্রস্ত বলা হচ্ছে, সেটা সব থেকে বড় ভুল শব্দ। কোনওভাবেই এটা সত্যি হতে পারে না। কোনও ঘটনায় সুশান্তের সাময়িক মন খারাপ হতে পারে, তাকে মানসিক অবসাদ বলা যায় না। মানসিক অবসাদ শব্দটা অনেক বড় শব্দ। কোনও কারণ ছাড়াই কীভাবে কেউ কাউকে মানসিক অবসাদগ্রস্ত বলতে পারেন?’

বেশকিছুটা উত্তজিত হয়েই অঙ্কিতাকে এমন মন্তব্য করতে শোনা গেল…

রিপাবলিক টিভির প্রতিবেদন অনুসারে অঙ্কিতা বলেন, ‘যখন আমি প্রথম শুনলাম ও আত্মহত্যা করেছে। বিষয়টা আমি মানতে পারিনি। এটা বিশ্বাস করতে আমার সময় লেগেছে। সুশান্ত সেধরনের ছেলেই ছিল না যে কোনও কিছুতে মন খারাপ করে এত বড় পদক্ষেপ নেবে। আমরা যখন একসঙ্গে থাকতাম, তখন আরও অনেক কঠিন পরিস্থিতি আমরা পার করেছি। সুশান্তের ঘরের বিভিন্ন ভিডিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হচ্ছিল। অনেকেই বলছেন এটা আত্মহত্যা, তবে আমি বিশ্বাস করিনি। সুশান্ত ডায়েরি লিখত। আমরা যখন সম্পর্কে ছিলাম, তখন ও লিখেছিল আগামী ৫ বছর পর ও নিজেকে কোথায় দেখতে চায়। আর ও সেই জায়গায় নিজেকে পৌঁছেছিল অনেকেই ওকে দিমেরুর মানুষ বলছেন। আমি জোর গলায় বলতে পারি, ও মানসিক অবসাদগ্রস্ত ছিল না। ও খুবই আবেগপ্রবণ ছিল, একেবারে শিশুদের মতো। ও বলত ও চাষাবাদ করবে। আর কিছুই না হলে শর্টফিল্ম করবে। ও মানসিকভাবে ভেঙে পড়ার ছেলে কখনওই নয়।’

 

সুত্রঃ বাংলাদেশ প্রতিদিন

শর্টলিংকঃ

প্রিয় পাঠক, স্বভাবতই আপনি নানান ঘটনার সাক্ষী। শেয়ার করুন আমাদের। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের ইমেলে পাঠিয়ে দিন, [email protected] ঠিকানায়। অথবা যুক্ত হতে পারেন @silkcitynews.com আমাদের ফেসবুক পেজে। কোন এলাকা, কোন দিন, কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই দেবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।