সুশান্তকে খুন করিয়েছেন মাফিয়া ডন দাউদ ইব্রাহিম

নিউজ ডেস্ক

আত্মহত্যা না খুন, বলিউড অভিনেতা সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুর পর থেকেই এই আলোচনায় ব্যস্ত ভারতবাসী। সুশান্তের ভক্তদের পাশাপাশি শোবিজের মানুষ তো বটেই, ক্রিকেট, ফুটবল, আইনজীবী, রাজনীতিবিদসহ নানা অঙ্গনের মানুষেরাই সুশান্তের মৃত্যুকে খুন বলে দাকি করছেন। তারা এই খুনের রহস্য উদঘাটন করে দোষীদের শাস্তি দাবি করছেন।

অনেকে তো সুশান্তের মৃত্যুর জন্য সরাসরি সালমান খান, সঞ্জয়লীলা বানসালি, একতা কাপুর, করণ জোহরদের মতো তারকাদের দোষী বলছেন। তাদের বিরুদ্ধে মামলাও করেছেন বিহারের এক আইনজীবী। যদিও বিহারের আদালতে সেই মামলা খারিজ হয়ে গেছে। তবুও সুশান্তের মৃত্যুকে খুন হিসেবেই দেখতে চাইছেন তারা।

এদিকে এই মৃত্যু নিয়ে নতুন করে আগুনে ঘি ঢাললেন ভারতের প্রাক্তন এক অফিসার। তিনি বলেছেন, সুশান্তকে খুন করিয়েছেন দাউদ ইব্রাহিম। এই গডফাদারের গ্যাংরাই টাকার বিনিময়ে সুশান্তকে খুন করেছে।

‘র’-এর অফিসার এনকে সুদের দাবি, খুব ঠান্ডা মাথায় ছক কষে খুন করা হয়েছে অভিনেতাকে। কোনো পেশাদার খুনি ছাড়া এ কাজ অসম্ভব! সোশ্যাল মিডিয়ায় নেটিজেনরা যখন সুশান্ত মৃত্যু রহস্যের কিনারা করতে সিবিআইকে চাইছে, ঠিক তার মাঝেই সুদ বিস্ফোরক দাবি তুলে বলেন দাউদের দলই সুশান্তকে খুন করেছে।

সুদ বলেন, ‘দাউদের কোনো শাগরেদের হাতেই সুশান্ত খুন হয়েছেন। কারণ, গত কয়েক মাস ধরেই সুশান্তকে হুমকি দেওয়া হচ্ছিল। এজন্য তিনি প্রায় ৫০ বার সিমকার্ড বদলে ফেলেছিলেন। কেউ তাকে খুন করে ফেলতে পারে, এই আশঙ্কাতেই সুশান্ত গাড়িতেও ঘুমিয়েছেন অনেক রাত।’

নিজের দাবির পক্ষে যুক্তি দিয়ে এই প্রাক্তন গোয়েন্দা বলেন, ‘অভিনেতার মৃত্যুর আগের দিন সিসিটিভি ক্যামেরা বন্ধ করে দেওয়া থেকে শুরু করে, ডুপ্লিকেট চাবি হারিয়ে যাওয়ার মতো অনেক তথ্যপ্রমাণ রয়েছে। তা দেখিয়ে দেয় যে, কেউ অত্যন্ত ঠান্ডা মাথায় সুশান্তের খুনের ছক কষেছে।’

প্রসঙ্গত, দাউদ ইব্রাহিমের সঙ্গে গ্ল্যামার জগতের সম্পর্কের কথা অনেক পুরনো। অতীতেও বলিউড ইন্ডাস্ট্রির প্রভাবশালী ব্যক্তিত্বরা দাউদের সঙ্গে মিশতেন। অনেক তারকাদের নিজের ইচ্ছেমতো ব্যবহারও করেছেন দাউদ। কাজেই এনকে সুদের এই বিস্ফোরক দাবিকে একেবারেই উড়িয়ে দিতে চাইছেন সুশান্ত ভক্তরা। কিন্তু দিন কয়েক আগেই পাকিস্তানে দাউদের মৃত্যুর খবর শোনা গিয়েছে। সেটি সত্যি হলে এনকে সুদের দাবির পক্ষে থাকা মুশকিলই হয়ে যাবে বৈকি!

 

সুত্রঃ জাগো নিউজ

শর্টলিংকঃ

প্রিয় পাঠক, স্বভাবতই আপনি নানান ঘটনার সাক্ষী। শেয়ার করুন আমাদের। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের ইমেলে পাঠিয়ে দিন, [email protected] ঠিকানায়। অথবা যুক্ত হতে পারেন @silkcitynews.com আমাদের ফেসবুক পেজে। কোন এলাকা, কোন দিন, কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই দেবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।