সোমবার , ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২৩ | ১১ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
  1. অন্যান্য
  2. অপরাধ ও দুর্নীতি
  3. অর্থ ও বাণিজ্য
  4. আইন আদালত
  5. আন্তর্জাতিক
  6. কৃষি
  7. খেলা
  8. চাকরি
  9. ছবিঘর
  10. জাতীয়
  11. তথ্যপ্রযুক্তি
  12. দুর্ঘটনা
  13. ধর্ম
  14. নারী
  15. নির্বাচিত খবর

সিট বাণিজ্যের বিরুদ্ধে লড়াই করাই ছাত্রলীগের কাজ: ছাত্রলীগ সভাপতি সাদ্দাম

Paris
সেপ্টেম্বর ১৮, ২০২৩ ৮:০০ অপরাহ্ণ

ফাহির আমিন :

‘আবাসন সমস্যাকে পুঁজি করে রাজনীতি করা ছাত্রলীগের কাজ নয়, বরং সিট বাণিজ্যের বিরুদ্ধে লড়াই করাই ছাত্রলীগের কাজ’ এমন মন্তব্য করেছেন ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি সাদ্দাম হোসেন। আজ সোমবার (১৮ সেপ্টেম্বর) রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবাস বাংলাদেশ মাঠে অনুষ্ঠিত শাখা ছাত্রলীগের বার্ষিক সম্মেলনের তিনি এসব কথা বলেন।

সাদ্দাম হোসেন বলেন, ‘বিশ্ববিদ্যালয়ের আবাসন সমস্যা রয়েছে। আবাসিক হলে শিক্ষার্থীরা যেন সুন্দর পরিবেশে থাকতে পারে সেটা নিশ্চিত করতে হবে। আমরা দেখেছি, অনেকে সিট বাণিজ্য, প্রশ্ন ফাঁস ও বিভিন্ন অনৈতিক কাজে জড়িয়ে পড়ছে। এমন অনৈতিক কাজের সাথে জড়িত থাকা ছাত্রলীগের কাজ নয়। বরং সিট বাণিজ্যের বিরুদ্ধে লড়াই করা-ই ছাত্রলীগের কাজ।

কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের এই নেতা আরও বলেন, ‘গোটা বাংলাদেশের সামনে রাবি ছাত্রলীগ হবে আইকনিক। এখানকার ছাত্ররা মৌলবাদীদের জায়গা দেয় না। স্বাধীনতা বিরোধী ও মৌলবাদী গোষ্ঠীর বিরুদ্ধে আন্দোলন করতে গিয়ে ছাত্রলীগের ছেলেরা জীবন দিয়েছে, তবুও তারা আপোস করেনি। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার স্বপ্ন পূরণে সবাইকে একসাথে কাজ করার আহবান জানিয়ে কেন্দ্রীয় এ ছাত্রনেতা বলেন, ‘২০৪১ সালের মধ্যে আমরা উন্নত দেশ হিসেবে পরিচিত হবে। সেই লক্ষ্য আমাদের কাজ করতে হবে। মিছিল মিটিংয়ে সীমাবদ্ধ না থেকে আমাদের নতুনত্ব নিয়ে আসতে হবে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আমাদের চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের স্বপ্ন দেখাচ্ছে।

সেই স্বপ্ন পূরণে আমাদের সবাইকে একসাথে কাজ করতে হবে। এসময় প্রধান বক্তা হিসেবে ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক শেখ ওয়ালি আসিফ ইনান বলেন, ‘আজকের দিনে শিবিরের ‘টর্চার’ থেকে বেরিয়ে এসে শিক্ষার পরিবেশ সৃষ্টি করেছে ছাত্রলীগ। যারা বিশ্বিবদ্যালয় ছাত্রলীগের দায়িত্ব নিবে তারা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার স্বপ্নের বাংলাদেশ গড়তে কাজ করবে সেই প্রত্যাশা করি।’ সম্মেলনে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও জাতীয় সংসদের হুইপ আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন এমপি বলেন, ‘রাজশাহীতে ছাত্রলীগ করা আর মরুভূমিতে ছাত্রলীগ করা একই কাজ। কেন্দ্রীয় কমিটির কাছে আহবান থাকবে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রলীগের উৎসর্গটা দেখে তাদের যোগ্যতাটা যেন বিবেচনা করা হয়।’ এসময় প্রধান অতিথির বক্তব্যে আওয়ামীলীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন বলেন, ২০০৮ সালের নির্বাচনে পরাজয়ের পর বিএনপি আর নির্বাচনে আসতে চায় না।

নির্বাচনের সময় আসলে তারা নানা বাহানা শুরু করে। নির্বাচন করবে না, নির্বাচন হতে দেবে না, এসব কথা বলে। রাজনৈতিকভাবে তারা নির্বাচন না করতেই পারে। কিন্তু নির্বাচন হতে দেবে না, এই কথায় আমার ঘোর আপত্তি আছে। এই দেশ তাদের বাপের সম্পত্তি না। আওয়ামীলীগের সভাপতিমণ্ডলীর এ সদস্য আরও বলেন, ছাত্রলীগের অসংখ্য অর্জনের মধ্যে শ্রেষ্ঠ অর্জন ১৯৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধে অগ্রণী ভূমিকা পালন করা। শুধু জয় বাংলা স্লোগান দিলেই হবে না, পড়ালেখাও করতে হবে। ছাত্রলীগে অনুপ্রবেশকারী থাকলে তাদেরকে পদে না আনার জন্য কেন্দ্রীয় নেতাদের প্রতি আহ্বান জানান তিনি। এর আগে জাতীয় ও ছাত্রলীগের দলীয় পতাকা উত্তোলন, বেলুন-ফেস্টুন ও পায়রা উড়িয়ে সম্মেলনের উদ্বোধন করেন বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সভাপতি সাদ্দাম হোসেন। সম্মেলনের প্রথম অধিবেশন শেষে শাখা ছাত্রলীগের বর্তমান কমিটিকে বিলুপ্ত ঘোষণা করে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ৷ সম্মেলনে সম্মানিত অতিথি ছিলেন আওয়ামী লীগের স্বাস্থ্য ও জনসংখ্যা বিষয়ক উপ-কমিটির সদস্য ও কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সভাপতি ডা. আনিকা ফারিহা জামান অর্ণা। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন রাবি ছাত্রলীগের সভাপতি গোলাম কিবরিয়া।

সঞ্চালনা করেন রাবি ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ফয়সাল আহমেদ রুনু। এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মোহাম্মদ আলী কামাল, বিশেষ বক্তা ছিলেন বাংলাদেশ ছাত্রলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আব্দুল্লাহ হীল বারী, উপ-গ্রন্থনা ও প্রকাশনা সম্পাদক সাখাওয়াত হোসেন রনি, উপ-কর্মসংস্থান বিষয়ক সম্পাদক মোঃ সাব্বির হোসেন, সহ-সম্পাদক আদনান হোসেন।

সর্বশেষ - রাজশাহীর খবর