সরকারি অফিসে ‘আগ্নেয়াস্ত্র’ হাতে তৃণমূল নেত্রীর ছবি ভাইরাল

পশ্চিমবঙ্গে সরকারি অফিসে ‘আগ্নেয়াস্ত্র’ হাতে বসে রয়েছেন এক নারী- এমন একটি ছবি ভাইরাল হয়েছে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমগুলোতে। এ নিয়ে রীতিমতো তুলকালাম শুরু হয়েছে স্থানীয় রাজনীতিতে। কারণ, ওই নারী রাজ্যে ক্ষমতাসীন তৃণমূল কংগ্রেসের নেত্রী এবং পুরোনো মালদহের পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি মৃণালিনী মণ্ডল মাইতি।

বিষয়টি প্রকাশ্যে আসতেই তৃণমূলকে একের পর এক আক্রমণ করে চলেছে বিজেপি। গেরুয়া শিবিরের অভিযোগ, তৃণমূল দুষ্কৃতদের দল। তাদের কাছে সবসময় আগ্নেয়াস্ত্র থাকে। এটিই তৃণমূলের সংস্কৃতি হয়ে দাঁড়িয়েছে।

বিজেপির জেলা সভাপতি গোবিন্দ্র চন্দ্র মণ্ডল বলেন, এটি ওদের কালচারে পরিণত হয়েছে। ওদের কাছে খুঁজলেই বোমা পাওয়া যাবে, একে-৪৭ পাওয়া যাবে। কয়েক বছরে মালদহকে বারুদের স্তূপে পরিণত করেছে। পুলিশ চাকরি চলে যাওয়ার ভয়ে কিছু বলতে পারছে না।

অবশ্য এখনই বিজেপির অভিযোগ মানতে নারাজ তৃণমূল। দলটির নেতা কৃষ্ণেন্দু নারায়ণ চৌধুরী বলেছেন, তৃণমূল নেত্রীর হাতে যেটি দেখা গেছে তা আদৌও সত্যিকারের আগ্নেয়াস্ত্র নাকি খেলনা তা খতিয়ে দেখা হবে। এ বিষয়ে পুলিশ তদন্ত করবে। তবে সত্যিই যদি সরকারি অফিসে আগ্নেয়াস্ত্র নেওয়ার ঘটনা ঘটে, তবে তা মোটেও কাম্য নয়।

এ বিষয়ে এখনো মৃণালিনী মণ্ডলের বক্তব্য পাওয়া যায়নি। তৃণমূলের এ নেত্রী আগেও কয়েকবার বিতর্কে জড়িয়েছেন। তার স্বামীর বিরুদ্ধেও নানা বেআইনি কাজের অভিযোগ রয়েছে।

 

সুত্রঃ জাগো নিউজ