সংক্রমণের নতুন ধারা, এবার মস্তিষ্কে ক্ষতি করতে পারে করোনা

নিউজ ডেস্ক
  • 15
    Shares

করোনার নতুন ধরণের সংক্রমণে বড়সড় ক্ষতি হতে পারে মস্তিষ্কে । গবেষকরা নতুন করোনা সংক্রমণের ধারার কথা শোনালেন, যা রীতিমত আশঙ্কার। সমীক্ষা বলছে, কোভিড ১৯য়ের নতুন পরীক্ষায় কিছু ফলাফল এই ধারার ইঙ্গিত করছে। এছাড়াও হতে পারে স্নায়ুতন্ত্রের ক্ষতি।

ইউনিভার্সিটি কলেজ লন্ডন বা ইউসিএলের গবেষকরা জানাচ্ছেন, এরকম ৪৩টি কেস তাঁরা পেয়েছেন, যেখানে কোভিড রোগির মস্তিষ্কে ক্ষতি হয়েছে। গবেষকদের ধারণা এই রোগিদের আগে থেকেই মস্তিষ্ক সংক্রান্ত কোনও রোগ ছিল। যেমন স্ট্রোক, স্নায়ুতন্ত্রের রোগ, মস্তিষ্কের অকার্যকারীতা ইত্যাদি।

গবেষকদের মতে এবার থেকে মানব শরীরে করোনার প্রভাব হিসেবে মস্তিষ্কের ক্ষতির বিষয়টিরও উল্লেখ করা হবে। করোনা মূলত ফুসফুসে আক্রমণ চালালেও, মস্তিষ্কেও এর প্রভাব পড়তে পারে। প্রভাব পড়তে পারে স্নায়ুতন্ত্রে। করোনার এই নতুন ধারা চিন্তায় ফেলেছে গবেষকদের। এদিকে, সমীক্ষা বলছে পরিস্থিতি ভালো নয়। করোনা সংক্রমণ ক্রমশ হাতের বাইরে চলে যাচ্ছে।

এরই মাঝে আশঙ্কার খবর শোনাল ম্যাসাচুসেটস ইন্সটিটিউট অফ টেকনোলজি বা এমআইটি। এই প্রতিষ্ঠান জানাচ্ছে ভারতের করোনা পরিস্থিতি আরও খারাপ পর্যায়ে যেতে চলেছে। এমআইটির দাবি ২০২১ সালের ফেব্রুয়ারি মাস পর্যন্ত সর্বাধিক করোনা সংক্রমণ দেখতে চলেছে ভারত।

ফেব্রুয়ারিতে প্রতি দিন ২.৮৭ লক্ষ মানুষ আক্রান্ত হতে পারেন। মোট ৮৪টি দেশের ডেটা সংগ্রহ করেছে এমআইটি। তারপরেই সমীক্ষা চালানো হয়েছে। গবেষক হাঝির রহমানদাদ, টিওয়াই লিম ও জন স্টেরম্যান এই সমীক্ষা চালান। গোটা বিশ্বে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা পৌঁছতে পারে ২০ কোটিতে, জানাচ্ছে তাঁদের সমীক্ষা।

তাঁরা আরও জানাচ্ছেন সঠিকভাবে চিকিৎসা না পেলে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়াতে পারে ৬০ কোটি। জানা গিয়েছে, করোনায় সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্থ রাষ্ট্র হতে চলেছে ভারত। এরপরেই থাকবে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, দক্ষিণ আফ্রিকা, ইরান।

শর্টলিংকঃ

প্রিয় পাঠক, স্বভাবতই আপনি নানান ঘটনার সাক্ষী। শেয়ার করুন আমাদের। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের ইমেলে পাঠিয়ে দিন, [email protected] ঠিকানায়। অথবা যুক্ত হতে পারেন @silkcitynews.com আমাদের ফেসবুক পেজে। কোন এলাকা, কোন দিন, কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই দেবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।