শীতে ট্রেন্ডি সোয়েটার পরে তাক লাগিয়ে দিন

শীত এলেই বাহারি গরম কাপড়ের পসরা সাজিয়ে বসেন বিক্রেতারা। তবে কোনটা ছেড়ে কোনটা কিনবেন? এ বিষয়ে দিশেহারা হয়ে পড়েন। কারণ সব ধরনের সোয়েটার কিন্তু আপনার সঙ্গে না-ও মানাতে পারে। তাই শারীরিক গঠন, রঙ ও কাপড়ের ধরন বুঝে কিনুন সোয়েটার।

এ ছাড়া ট্রেন্ডি সোয়েটার না পরলে আপনার লুকে আসবে না ভিন্নতা। চলুন এবারের শীতের ট্রেন্ডি কিছু সোয়েটার সম্পর্কে জেনে নিন। এগুলো আপনার কালেকশনে না থাকলে দ্রুত কিনে ফেলুন-

>> বর্তমানে ফাজি ঘরানার সোয়েটারগুলোর চাহিদা অনেকটা বেড়েছে। শীতে ফ্যাশনের নতুন ট্রেন্ড ফাজি সোয়েটার। এই সোয়েটারগুলো বেশ গরম হয়। এ ছাড়াও ফ্যাব্রিক হালকা হওয়ায় বহনের ক্ষেত্রেও রয়েছে সুবিধা। এ ঘরানার সোয়েটারগুলো স্বাস্থ্যবানরা পরলে কিছুটা মোটা লাগতে পারে।

fashion1.jpg

>> চোকার সোয়েটার পরলে সব নারীদেরই ভালো লাগবে। স্কার্ট, জিন্স, পালাজো সব কিছুর সঙ্গেই মানিয়ে যায় ওয়েস্টার্ন এ আউটফিট। আপনি যদি ওয়েস্টার্ন ড্রেস না পরেন তবে এটি বাদ দিতে পারেন। এ সোয়েটারটি পরলে মনে হবে আপনি যেন গলায় চোকার পরেছেন। তাই আলাদা চোকার পরার প্রয়োজন হবে না।

>> টারটল নেক সোয়েটার বেশ জনপ্রিয় ইদানিং। যে কোনো ড্রেসের ওপরই আপনি এ সোয়েটার পরতে পারবেন। দেখতে স্টাইলিশ লাগবে সঙ্গে শরীর গরম হবে দ্রুত।

>> ফ্যাশনে এক খুব ঢিলেঢালা ওভারসাইজড সোয়েটারও পরছেন অনেকে। এ ধরনের সোয়েটার আপনি লংও পরতে পারেন; আবার বেল্ট লাগিয়েও পরতে পারেন। যেভাবেই পরুন না কেন, দেখতে বেশ মানানসই লাগবে। লং সোয়েটার হলে জেগিংস দিয়ে পরতে পারেন।

fashion1.jpg

>> সোয়েটার ড্রেস বিভিন্ন ডিজাইনের হয়ে থাকে। যেমন- শর্ট, মিডিয়াম আবার লং, কখনো হাফ হাতা কখনো থ্রি-কোর্টার কিংবা ফুল। ফ্যাশনে এসব সোয়েটার ড্রেস পরে যেখানে ইচ্ছে বের হতে পারেন।

>> ওয়েস্টার্ন ঘরানার ক্রপড হুডি এখন সবারই পছন্দের। এ পোশাক আপনার স্টাইলকে ভিন্ন মাত্রা দেবে।

> কার্ডিগান কি শুধু বয়স্করাই পড়েন! মোটেও না। ফ্যাশনে কার্ডিগানের চাহিদাও তুঙ্গে। নানা রঙের ও ডিজাইনের কার্ডিগান রয়েছে। এগুলো দিয়ে স্টাইলও করা যায় ভিন্নভাবে। তাই পছন্দের কার্ডিগান কিনে স্টাইল করে এ শীতে সবাইকে তাক লাগিয়ে দিন।

 

সুত্রঃ জাগো নিউজ

শর্টলিংকঃ

প্রিয় পাঠক, স্বভাবতই আপনি নানান ঘটনার সাক্ষী। শেয়ার করুন আমাদের। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের ইমেলে পাঠিয়ে দিন, silkcitynews@gmail.com ঠিকানায়। অথবা যুক্ত হতে পারেন @silkcitynews.com আমাদের ফেসবুক পেজে। কোন এলাকা, কোন দিন, কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই দেবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।