রেলওয়ে স্টেশনে ব্রেস্ট ফিডিং কর্নার, মায়েদের স্বস্তি

নিউজ ডেস্ক

সিল্কসিটিনিউজ ডেস্ক: 

চট্টগ্রাম রেলওয়ে স্টেশনের দ্বিতীয় তলায় যাত্রীদের বিশ্রামাগার কক্ষে স্থাপন করা হয়েছে ব্রেস্ট ফিডিং কর্নার (মাতৃদুগ্ধ পানের স্থান)। শুধু চট্টগ্রাম রেলওয়ে স্টেশন নয়, ব্রাহ্মণবাড়িয়া ও সিলেট স্টেশনসহ কয়েকটি স্টেশনে স্থাপন করা হয়েছে এ ব্রেস্ট ফিডিং কর্নার।

রেলওয়ের কর্মকর্তারা জানান, গুরুত্বপূর্ণ ৬টি স্টেশনে ব্রেস্ট ফিডিং কর্নার স্থাপন করা হয়েছে। পর্যায়ক্রমে আখাউড়া, শায়েস্তাগঞ্জ, ভৈরব বাজার, সরিষাবাড়ি, বিমান বন্দর, শ্রীমঙ্গল, ব্রাহ্মণবাড়ীয়া, চাঁদপুর, জয়দেবপুর, কুমিল্লা, নরসিংদী, ফেনী, জামালপুর, লাকসাম ও নোয়াখালীসহ সবকটি স্টেশনে ব্রেস্ট ফিডিং কর্নার স্থাপন করা হবে।

প্রতিদিন কয়েক হাজার মানুষ চট্টগ্রাম রেলওয়ে স্টেশন থেকে ঢাকা, সিলেটসহ বিভিন্ন স্থানে যাতায়াত করেন। এখানে অনেক শিশুও মায়ের সঙ্গে আসে। শিশুদের ক্ষুধা লাগলে এত মানুষের ভিড়ে মায়েরা তাদের সন্তানকে বুকের দুধ খাওয়াতে স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করেন না। তাই এ ব্রেস্ট ফিডিং কর্নার স্থাপন জরুরি হয়ে পড়েছিল।

চট্টগ্রাম রেলওয়ে স্টেশনের দ্বিতীয় তলার বিশ্রামাগারে স্থাপন হওয়া ব্রেস্ট ফিডিং কর্নার ব্যবহার করে এক বছর বয়সী এক শিশুর মা বাংলানিউজকে বলেন, রেলওয়ের উদ্যোগটি অবশ্যই প্রশংসনীয়। জনসমাগমস্থলে দুধ পান করানো নিয়ে বিড়ম্বনায় পড়তে হয়। এখন ব্রেস্ট ফিডিং কর্নার স্থাপন হওয়ায় কোনও অস্বস্তিতে পড়তে হয় না।

তিনি বলেন, যেহেতু এখনও স্টেশনে স্থাপন করা হয়েছে, এবার ট্রেনের প্রত্যেকটা বগিতেও ব্রেস্ট ফিডিং কর্নার স্থাপন করা দরকার। কারণ মায়েদের ঘণ্টার পর ঘণ্টা ট্রেন ভ্রমণ করতে হয়, ওই সময়েও সন্তানদের দুধ পান করাতে হয়। ব্রেস্ট ফিডিং কর্নার থাকলে নির্দ্বিধায় দুধ পান করানো যায়।

রেলওয়ে পূর্বাঞ্চলের মহাব্যবস্থাপক নাসির উদ্দিন আহমেদ বলেন, পূর্বাঞ্চলের সবকটি স্টেশনে পর্যায়ক্রমে ব্রেস্ট ফিডিং কর্নার স্থাপন করা হবে। মায়েদের দুধ পান করানো নিয়ে যাতে অস্বস্তিতে পড়তে না হয়, সেজন্য রেলওয়ের এমন উদ্যোগ।

প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, আগে সবকটি স্টেশনে স্থাপন করার পর, ট্রেনেও ব্রেস্ট ফিডিং কর্নার স্থাপনের বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। তবে এখনও পর্যন্ত ট্রেনে ব্রেস্ট ফিডিং কর্নার স্থাপনের বিষয়ে সিদ্ধান্ত হয়নি। আমরা এ ব্যাপারে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সঙ্গে যোগাযোগ করবো।

ব্রেস্ট ফিডিং রুম ও বেবি কেয়ার কর্নার স্থাপনে প্রয়োজনীয় নির্দেশনা চেয়ে ২৪ অক্টোবর হাইকোর্টে রিট করেন ৯ মাস বয়সী শিশু উমাইর বিন সাদী’র মা আইনজীবী ইশরাত হাসান।

শুনানি শেষে চলতি মাসের ৩ নভেম্বর সরকার পরিচালিত-নিয়ন্ত্রিত বা স্বায়ত্বশাসিত প্রতিষ্ঠান, কর্মস্থল, হাসপাতাল, শপিং মল, বিমানবন্দর, বাস স্ট্যান্ড, রেলওয়ে স্টেশনের মত জনসমাগমস্থলে ‘ব্রেস্ট ফিডিং কর্নার’ স্থাপনের পদক্ষেপ নিতে কেন নির্দেশ দেওয়া হবে না, জানতে চেয়ে রুল জারি করে হাই কোর্ট।

রুল জারি করার পর রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ ব্রেস্ট ফিডিং কর্নার স্থাপন করার এমন উদ্যোগ নেয়।

শর্টলিংকঃ

প্রিয় পাঠক, স্বভাবতই আপনি নানান ঘটনার সাক্ষী। শেয়ার করুন আমাদের। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের ইমেলে পাঠিয়ে দিন, [email protected] ঠিকানায়। অথবা যুক্ত হতে পারেন @silkcitynews.com আমাদের ফেসবুক পেজে। কোন এলাকা, কোন দিন, কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই দেবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।