রামেক হাসপাতারে করোনায় মৃত রোগীর লাশ ফেলে পালালো স্বজনরা

নিউজ ডেস্ক
  • 72
    Shares

নিজস্ব প্রতিবেদক:
করোনা আক্রান্ত হয়ে মৃত এক রোগীর লাশ নিয়ে বিপাকে পড়েছে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হসপাতাল কর্তৃপক্ষ ও মহানগর পুলিশ প্রশাসন (আরমএপি)। রামেক হাসপাতালের নিবিড় পর্যবেক্ষণ কেন্দ্রে (আইসিইউ) আজাদ আলী (৩০) নামে এক করোনা আক্রান্ত রোগীর মৃত্যু হয় শনিবার (৪জুলাই) দিবাগত রাত আনুমানিক দেড়টার দিকে।

হাসপাতালে সূত্রে জানা যায়, মৃত আজাদের বাড়ি নওগাঁ জেলার পত্নিতলা উপজেলার জামগ্রাম এলাকায়। আইসিইউতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শনিবার দিবাগত রাত দেড়টায় আজাদ আলী নামে এক রোগীর মৃত্যু হয়। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ লাশ স্বাস্থ্যবিধি মেনে দাফনের জন্য কোয়ান্টাম ফাউন্ডেশনের স্বেচ্ছাসেবীদের খবর দেয়।

তারা খবর পেয়ে রাত ২টার দিকে হাসপাতালে গিয়ে মৃতের দুই ভাইয়ের সাথে কথা বলে। এসময় মৃতের স্বজনরা জানায়, মৃত আজাদের লাশ তাদের গ্রামের বাড়িতে নিয়ে গেলে ওখানকার লোকজন দাফন করতে দিবে না। এসময় তারা লাশ রাজশাহীতে দাফনের জন্য অনুরোধ করে। তাদের অনুরোধ মতো কোয়ান্টাম ফাউন্টেশনের স্বেচ্ছাসেবী সদস্যরা রাজশাহীতে সেই লাশ দাফনের ব্যবস্থা শুরু করে।

প্রয়োজনীয় কাজ শেষে ভোরে ৬টায় আইসিইউতে স্বেচ্ছাসেবী সদস্যরা পুনরায় এসে দেখে মৃতের স্বজনেরা কউই নেই। তাদের দেয়া দুইটি নম্বরে কল করা হলে তাও বন্ধ পাওয়া যায়। লাশ ফেলে রেখে তারা চলে গেছে। এর পর হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে বিষয়টি জানায় কোয়ান্টামের স্বেচ্ছসেবী সদস্যরা। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ রোগীর স্বজনদের সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করেও যোগাযোগ করতে পারেননি।

রামেক হাসপাতালে উপ-পরিচালক ডা. সাইফুল ফেরদৌস বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, রোগীর স্বজনদের সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করা হচ্ছে। এছাড়া ঘটনাটি স্থানীয় ‍পুলিশ প্রশাসনকে জানান হয়েছে।

স/রা

শর্টলিংকঃ

প্রিয় পাঠক, স্বভাবতই আপনি নানান ঘটনার সাক্ষী। শেয়ার করুন আমাদের। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের ইমেলে পাঠিয়ে দিন, [email protected] ঠিকানায়। অথবা যুক্ত হতে পারেন @silkcitynews.com আমাদের ফেসবুক পেজে। কোন এলাকা, কোন দিন, কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই দেবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।