শনিবার , ১০ সেপ্টেম্বর ২০২২ | ১১ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
  1. অন্যান্য
  2. অপরাধ ও দুর্নীতি
  3. অর্থ ও বাণিজ্য
  4. আইন আদালত
  5. আন্তর্জাতিক
  6. কৃষি
  7. খেলা
  8. চাকরি
  9. ছবিঘর
  10. জাতীয়
  11. তথ্যপ্রযুক্তি
  12. দুর্ঘটনা
  13. ধর্ম
  14. নারী
  15. নির্বাচিত খবর

রাজশাহীতে সরকারি ব্যবস্থাপনায় হজ্জ পালনকারীদের পুনর্মিলনী-সংবর্ধনা ও দোয়া

Paris
সেপ্টেম্বর ১০, ২০২২ ৬:৪৬ অপরাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক:

রাজশাহীতে সরকারি ব্যবস্থাপনায় হজ্জ পালনকারীদের নিয়ে হজ্জ পুনর্মিলনী, সংবর্ধনা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। আজ শনিবার (১০ সেপ্টেম্বর) সকাল ১০ থেকে দিনব্যাপী রাজশাহী ইসলামিক ফাউন্ডেশন মিলনায়তনে এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

রাজশাহীতে সরকারিভাবে হজ্জ গাইডদের আয়োজনে অনুষ্ঠিত প্রোগ্রামে প্রধান অতিথি ছিলেন- রাজশাহী প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (রুয়েট) ভাইস-চ্যান্সেলর (অতিরিক্ত দায়িত্ব) অধ্যাপক ড. মো. সাজ্জাদ হোসেন। হজ্জ গাইড আলহাজ্জ ড. এ কে এম মুস্তাফিজুর রহমান ও আবু সউদ মো. আব্দুল অদুদের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন- রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ভেটেন্যারি অ্যান্ড অ্যানিমেল সায়েন্সেস অনুষদের ডীন আলহাজ্জ প্রফেসর ড. মো. জালাল উদ্দিন সরদার ও বায়োলজিক্যাল সায়েন্স অনুষদের ডীন আলহাজ্জ প্রফেসর ড. মো. শহীদুল আলম।

ইসলামিক ফাউন্ডেশন রাজশাহী বিভাগীয় কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক ও হজ্জ গাইড এ কে এম মুজাহিদুল ইসলামের সভাপতিত্বে ‘হজ্জ পরবর্তী জীবন’ বিষয়ের উপর আলোচনা করেন- রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের আরবি বিভাগের অধ্যাপক আলহাজ্জ ড. মুহা. উবায়দুল্লাহ। অনুষ্ঠানে বাংলাদেশের কৃষিক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ অবদানের স্বীকৃতি স্বরূপ রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রী কর্তৃক জাতীয় পর্যায়ে কৃষি-পদক (এআইপি) সম্মামনা-২০২০ অর্জন করায় নওগাঁর মান্দা উপজেলার শাহ্কৃষি তথ্য পাঠাগার ও জাদুঘরের প্রতিষ্ঠাতা আলহাজ্জ মো. জাহাঙ্গীর আলম শাহ্কে রাজশাহীতে সরকারিভাবে হজ্জ পালনকারীদের পক্ষ থেকে সংবর্ধনা প্রদান করা হয়। এসময় অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি আলহাজ্জ মো. জাহাঙ্গীর আলম শাহ্-এর হাতে সম্মাননা স্মারক তুলে দেন। ‘এআইপি সম্মাননা-২০২০’ অর্জন করায় রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজের সহকারী অধ্যাপক আলহাজ্জ ডা. মো. নুরুল ইসলাম ও আলহাজ্জ ডা. মো. শফিকুল ইসলাম তাকে উপহার সামগ্রী প্রদান করেন।

অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্যে হজ্জ গাইড আলহাজ্জ ড. এ কে এম মুস্তাফিজুর রহমান হজ্জ পালনকারীদের উদ্দেশ্যে বলেন, ‘আপনারা সরকারি ব্যবস্থাপনায় নিশ্চিন্তে কোনো ধরনের ঝামেলা ছাড়াই হজ্জের সকল কার্য সম্পাদন করেছেন। আপনারা জানেন- সরকারিভাবে ওমরা পালনের কোনো ব্যবস্থা নেই। এজন্য আপনারা এবং আপনাদের পরিবারের কোনো সদস্য কিংবা আত্মীয়-স্বজন ওমরা পালন করতে চাইলে আমি কোনো ধরনের দুর্ভোগ কিংবা হয়রানি ব্যতিরেকেই ওমরা পালনের প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবো।’

পুনর্মিলনী অনুষ্ঠানে দুই শতাধিক হজ্জ পালনকারী তাদের স্ব-স্ব হজ্জ পালনের অভিজ্ঞতা ও স্মৃতিচারণ করেন। অনুষ্ঠানের শেষ পর্যায়ে রাজশাহী টিচার্স ট্রেনিং কলেজ জামে মসজিদের খতিব আলহাজ্জ মাওলানা মো. আবু সালেহ্ সকলকে নিয়ে দেশ-জাতির মঙ্গল কামনায় দোয়া ও মুনাজাত পরিচালনা করেন।

এএইচ/এস

সর্বশেষ - ধর্ম